১৯শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৫ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

কালীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংবাদিক সম্মেলন

প্রতিনিধি :
শরিফুল ইসলাম রোকন
আপডেট :
আগস্ট ৮, ২০২০
54
বার খবরটি পড়া হয়েছে
শেয়ার :
| ছবি : 


স্টাফ রিপোর্টার, ঝিনাইদহঃ ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ উপজেলার জামালপুর ইউনিয়নের নারগানা গ্রামে ইন্টারন্যাশনাল রিসোর্ট সেন্টারের অন্তরালে অসামাজিক কর্মকান্ডে লিপ্ত রয়েছে জাতীয় পাটির প্রেসিডিয়াম সদস্য আজম খান।

সেখানে কিছু স্থাপনা নির্মাণ করে অপরাধের স্বর্গরাজ্য গড়ে তুলেছে সে। সেখানে দেশ-বিদেশ থেকে প্রমোদ বালা এনে সে তার সাঙ্গপাঙ্গদের নিয়ে আমোদ-প্রমোদে লিপ্ত থাকে । এতে এলাকাবাসী ক্ষুদ্ধ হয়ে বিভিন্ন সময় তাকে প্রতিরোধ করে তাকে এলাকায় অবাঞ্চিত ঘোষণা করে বলে জানান কালীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক এইচ.এম আবু বকর চৌধুরীসহ দলীয় নেতৃবৃন্দ।

তার অসামাজিক কর্মকান্ডে অতিষ্ঠ হয়ে ৭ই জুলাই শুক্রবার বিকেলে কালীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে দলীয় কার্যালয়ে এক সাংবাদিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

সাংবাদিক সম্মেলনে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক এইচ.এম আবু বকর চৌধুরী তার লিখিত বক্তব্যে জানান, ১৯৮৪ সালের ২৭ সেপ্টেম্বর তৎকালীন স্বৈরশাসনের বিরুদ্ধে গণতান্ত্রিক আন্দোলনের রাজপথে প্রকাশ্যে দিবালোকে বঙ্গবন্ধুর ঘনিষ্ঠ সহচর শহীদ ময়েজউদ্দিনকে নির্মমভাবে হত্যা করে আজম খান। ১/১১ সরকারের সময় যেদিন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে গ্রেফতার করা হয়, সেদিন খুনি আজম খান ঢাকার রাজপথে মিষ্টি বিতরণ করে আনন্দ-উল্লাস প্রকাশ করেছিল। খুন-খারাপিসহ এমন কোনো অপকর্ম নেই যা সে করেনি। এ খুনি জাতীয় পার্টির সরকারের সময় কালীগঞ্জ উপজেলার জামালপুর ইউনিয়নের নারগানা গ্রামে হিন্দু-মুসলমানদের বিভিন্ন জমি অন্যায়ভাবে জোর-জবরদস্তি করে দখল করে।

পরবর্তীতে বিএনপি জোট সরকারের সময় তাদের পৃষ্টপোষকায় তার জমির পরিধি আরও বৃদ্ধি করে। নারগানা ইন্টারন্যাশনাল রিসোর্ট নামে একটি সেন্টার স্থাপনা নির্মাণ করে সেখানে অপরাধের স্বর্গরাজ্য গড়ে তুলেছে সে। ২ আগষ্ট ঈদের পরেরদিন সে তার সাঙ্গপাঙ্গদের নিয়ে অসামাজিক কার্যকলাপে লিপ্ত থাকাবস্থায় এলাকার শতাধিক লোক উত্তেজিত হয়ে তার আস্তানা গিয়ে ধাওয়া দেয়।

সুচতুর আজম খান অবস্থা বেগতিক দেখে কৌশলে সেখান থেকে নদী পথে নৌকাযোগে পালিয়ে যায়। পরবর্তীতে বিক্ষুদ্ধ জনতা তাকে না পেয়ে আবারও তাকে কালীগঞ্জে অবাঞ্চিত ঘোষণা করে।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি পরিমল চন্দ্র ঘোষ, উপজেলা আওয়ামী লীগের যুব ও ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক মো. সাইফুল ইসলাম, উপজেলা আওয়ামী লীগের নেতা মো. মোস্তফা কামাল, কালীগঞ্জ পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি এসএম রবিন হোসেন, সাধারন সম্পাদক মো. কামরুল ইসলাম, জামালপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. মাহবুবুর রহমান খান ফারুক মাষ্টার, উপজেলা যুবলীগের সভাপতি এস এম আলমগীর হোসেন,কালীগঞ্জ পৌর যুবলীগের সভাপতি মোঃ বাদল হোসেন,সাধারন সম্পাদক মোঃ রেজাউর রহমান আশরাফী খোকন ও উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি তানভীর মেল্লা প্রমুখ।

সর্বশেষ খবর
menu-circlecross-circle linkedin facebook pinterest youtube rss twitter instagram facebook-blank rss-blank linkedin-blank pinterest youtube twitter instagram