২৮শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ১৫ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

১৪৪ ধারা প্রত্যাহারঃ বুধবার বসছে আলমডাঙ্গা পৌর পশুহাট

প্রতিনিধি :
শরিফুল ইসলাম রোকন
আপডেট :
জুলাই ২১, ২০২০
18
বার খবরটি পড়া হয়েছে
শেয়ার :
| ছবি : 


১৪৪ ধারা প্রত্যাহার করে নেওয়ায় দেশের অন্যতম বৃহত্তর আলমডাঙ্গা পৌর পশুহাট আজ বুধবার আবার যথারীতি বসবে। আলমডাঙ্গা পৌর পশুহাটের জমি পৌরসভার পরিবর্তে অন্যত্র লিজ প্রদান করায় সৃষ্ট জটিলতাকে কেন্দ্র করে প্রশাসন যে ১৪৪ ধারা জারি করেছিল। পরবর্তিতে সেই লীজ বাতিল করা হলে প্রশাসন গতকাল ১৪৪ ধারা প্রত্যাহার করে নিয়েছে। ফলে আজ বুধবার থেকে আলমডাঙ্গা পৌর পশুহাট বসার ক্ষেত্রে আর আইনগত কোন বাঁধা থাকলো না।
জানা গেছে, দেশের ২য় বৃহত্তম আলমডাঙ্গা পৌর পশুহাট। প্রতি বছর এ পশুহাট ইজারা দিয়ে আলমডাঙ্গা পৌরসভা কয়েক কোটি টাকা অর্জন করে। এই হাটের ইজারার টাকায় মুলত আলমডাঙ্গা পৌরসভা স্টাফের বেতন ও উন্নয়নমূলক কর্মকান্ড হয়ে থাকে।


খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, ১৯৮৬ সালে এ পশুহাট প্রতিষ্ঠিত। মোট ৩ একর ১৯ শতক জমি রেলওয়ে ও পানি উন্নয়ন বোর্ডের নিকট থেকে লীজ নিয়ে তার উপর পশুহাট বসে আসছে। সপ্তায় শুধু এক দিন অর্থাৎ বুধবার এ পশুহাট বসে। বর্তমানে আলমডাঙ্গা পৌরসভা কর্তৃক বাংলাদেশ রেলওয়ের নিকট থেকে লীজ নবায়ন করা হয়নি অভিযোগ তুলে তা অন্যত্র লীজ প্রদান করা হয়। গত ৮ জুলাই বাংলাদেশ রেলওয়ের পাকশী ডিইও দপ্তর মিরপুর উপজেলার পোড়াদহ খর্দ আইলচারার আকবর আলীর ছেলে রবিউল ইসলামকে নতুন করে লীজ প্রদান করে। পূর্বের লীজ গ্রহীতা আলমডাঙ্গা পৌরসভার অনুকুলে লীজ না দেওয়াতে বর্তমান পশুহাট নিয়ে বেশ জটিলতা সৃষ্টি হয়।


লীজ গ্রহিতা খেলাপী না হওয়া সত্বেও অন্যত্র নতুন করে লীজ প্রদান করায় রেলওয়ের বিভাগীয় সংশ্লিষ্ট ভূসম্পত্তি কর্মকর্তা ও ফিল্ড কানুনগোসহ ৪ জনের বিরুদ্ধে আলমডাঙ্গা পৌরসভা গত ১৩ জুলাই আলমডাঙ্গা সহকারী জজ আদালতে মামলা করে। ওই মামলার প্রেক্ষিতে একই দিনে উপরোক্ত ১ ও ২ নং বিবাদীকে ৭ দিনের ভেতর কারণ দর্শানোর নোটিশ প্রদান করেন সিনিয়র সহকারী জজ আদালত, চুয়াডাঙ্গা।


এমন পরিস্থিতিতে, গত ১৫ জুলাই রাতে ওই পশুহাটস্থলে ১৪৪ ধারা জারি করে প্রশাসন। চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রশাসক ও জেলা ম্যাজিস্ট্রেট নজরুল ইসলাম সরকারের নির্দেশক্রমে আলমডাঙ্গা সহকারী কমিশনার (ভূমি) হুমায়ুন কবীর এ নির্দেশনা জারি করেন। মূলত, ১৪৪ ধারা জারির পর থেকে আলমডাঙ্গা পৌর পশুহাট বন্ধ হয়ে যায় অনির্দিষ্টকালের জন্য।


গত ২০ জুলাই রেলওয়ে পাকশীর বিভাগীয় ভূ-সম্পত্তি কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ নুরুজ্জামান গত ১৩ জুলাই পোড়াদহ খর্দ আইলচারার রবিউল ইসলামের অনুকুলে প্রদান করা লীজ স্থগিত করেন। লীজ প্রদান স্থগিত করার বিষয়টি চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রশাসককে লিখিতভাবে অবহিত করে রেলওয়ে বিভাগ। লীজ স্থগিতের বিষয়টি অবহিত হওয়ার পর গতকাল ২১ জুলাই জেলা প্রশাসক নজরুল ইসলাম সরকার গত ১৫ জুলাই জারিকৃত ফৌজদারী কার্যবিধির ১৪৪ ধারা প্রত্যাহার করে নেন। বিষয়টি গতকালই শহরে মাইকিং করে প্রচার করা হয়েছে। এদিকে, আজ বুধবার থেকে আবার দেশের অন্যতম বৃহত আলমডাঙ্গা পৌর পশুহাট বসার সংবাদে স্বস্তি ফিরেছে এতদাঞ্চলের খামারিদের মাঝে। গত ১৬ জুলাই অনির্দিষ্টকালের জন্য ১৪৪ ধারা জারির পর থেকে এলাকার খামারিরা উদ্বিগ্ন হয়ে উঠেছিলেন।

সর্বশেষ খবর
menu-circlecross-circle linkedin facebook pinterest youtube rss twitter instagram facebook-blank rss-blank linkedin-blank pinterest youtube twitter instagram