২৮শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ১৫ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

মৎস সম্পদ রক্ষায় মৎস সংরক্ষণ আইনে আলমডাঙ্গার কুমার নদে অভিযান পরিচালনা

প্রতিনিধি :
শরিফুল ইসলাম রোকন
আপডেট :
মে ১৬, ২০২২
8
বার খবরটি পড়া হয়েছে
শেয়ার :
| ছবি : 

মৎস সম্পদ রক্ষায় মৎস সংরক্ষণ আইনে আলমডাঙ্গার কুমার নদে অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে। গতকাল ১৬ মে সোমবার উপজেলা সহকারি কমিশনার ভ‚মি ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও মৎস কর্মকর্তা যৌথভাবে এ অভিযান পরিচালনা করেন। এ সময় বাঁধ অপসারণের জন্য সময় নির্ধারন ও বেশ কয়েক শ' মিটার চায়না দোয়াড়ি জাল জব্দ করে ভষ্মিভূত করা হয়।
আলমডাঙ্গায় দীর্ঘদিন ধরে কুমার নদে এক শ্রেণীর মানুষ দখল করে বাঁধ দিয়ে মাছ চাষ করে । তারা পানির অবাধ প্রবাহে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করে দেশীয় প্রজাতির মাছের বিচরণে বাধাগ্রস্ত করছে।


এমন নানা অভিযোগে আলমডাঙ্গার হাড়গাড়ি ব্রীজ থেকে হারদী পর্যন্ত কৃমার নদে দখলকৃত জলাশয় উন্মুক্তের জন্য অভিযান চালানো হয়। উপজেলা সহকারি কমিশনার ভ‚মি ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট রেজওয়ানা নাহিদ ও উপজেলা মৎস্য অধিদপ্তরের কর্মকর্তা ফাতেমা কামরুন্নাহার আখির যৌথ অভিযানে উপস্থিত ছিলেন মৎস্য সম্প্রসারন কর্মকর্তা আব্দুল মালেক, সম্প্রসারন কর্মকর্তা শাহিনা আক্তার, ইউপি চেয়ারম্যান আবু সাঈদ পিন্টু, পানি উন্নয়ন বোর্ডের কর্মকর্তা ও আলমডাঙ্গা থানা পুলিশ। মৎস সম্পদ রক্ষায় মৎস সংরক্ষণ আইন বাস্তবায়নে কুমার নদে বাঁধ অপসারণের জন্য দখলদারদের ১৫ দিনের মধ্যে সময় নির্ধারণ করে দেওয়া হয়।


এদিকে একই দিন মৎস কর্মকর্তা ফাতেমা কামরুন্নাহার আঁখি আলমডাঙ্গার লালব্রীজ এলাকায় কুমার নদে অভিযান পরিচালনা করেন। অভিযানে জিকে ক্যানেলে মাছের অবাধ বিচরণে বাধাগ্রস্ত ও আড়াআড়ি পাটাতন ও বাঁধ অপসারণ করা হয়। একই সময় জিকে ক্যানেলে পেতে রাখা চায়না দোয়াড়ি কয়েক শ' মিটার জাল জব্দ করে তা ভস্মিভূত করা হয়। এ সময় উপস্থিত ছিলেন মৎস সম্প্রসারণ কর্মকর্তা আব্দুল মালেক,সম্প্রসারণ কর্মকর্তা, ক্ষেত্র সহকারী দ্বয় হাবিবুর রহমান,সোহেল রানা,ইউনিয়ন লীফ মারুফুল ইসলাম প্রমুখ।

সর্বশেষ খবর
menu-circlecross-circle linkedin facebook pinterest youtube rss twitter instagram facebook-blank rss-blank linkedin-blank pinterest youtube twitter instagram