২০শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৭ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

জামজামির বিশাল কর্মী সমাবেশে দিলীপ কুমার আগরওয়ালা : এমন কোন অপশক্তি নেই যারা নির্বাচনকে প্রতিহত করতে পারে

প্রতিনিধি :
শরিফুল ইসলাম রোকন
আপডেট :
অক্টোবর ২১, ২০২৩
25
বার খবরটি পড়া হয়েছে
শেয়ার :
| ছবি : 

প্রধানমন্ত্রী স্মার্ট বাংলাদেশ গড়তে চেয়েছেন। আমি স্মার্ট চুয়াডাঙ্গা গড়তে চাই। আমি চাই নৌকা বিজয়ী হোক। নৌকার বিজয় মূলত আমাদের, আপনাদের সকলের বিজয়। ২১ অক্টোবর শনিবার বিকেলে আলমডাঙ্গার জামজামি বাজারে অনুষ্ঠিত এক জনাকীর্ণ কর্মী সমাবেশে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে উপরোক্ত বক্তব্য রাখেন ডায়মন্ড ওয়াল্ডের স্বত্বাধিকারী বাংলাদেশ জুয়েলার্স সমিতির সাধারণ সম্পাদক ও বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের শিল্প ও বাণিজ্য বিষয়ক উপকমিটির সদস্য দিলীপ কুমার আগরওয়ালা।

এ সময় তিনি বলেন, দেশের বিরুদ্ধে গভীর ষড়যন্ত্র চলছে।নির্বাচন বন্ধের ষড়যন্ত্র। ২৮ তারিখে বিএনপির মহাসমাবেশ। আগেও বিএনপি মহাসমাবেশ করেছে। তাতে কী হয়েছে? পূর্বের মতই এবারের মহাসমাবেশও ব্যর্থ হবে। প্রধানমন্ত্রীর উন্নয়নের প্রবল স্রোতে ভেসে যাবে।

তিনি বলেন, বিএনপির অতীত আমরা জানি। তারা চলমান উন্নয়নকে বাধাগ্রস্ত করতে চায়। নির্বাচনকে প্রতিহত করতে চায়। এমন কোন অপশক্তি নেই যারা নির্বাচনকে প্রতিহত করতে পারে। তারা ২০১৪ ও ২০১৮ সালেও নির্বাচনকে প্রতিহত করতে পারেনি, এবারও পারবে না। নির্বাচন প্রতিহতের নামে সে সময় তারা আইনজীবীকে হত্যা করেছে, হাসপাতালে পর্যন্ত আগুন দিয়েছে। নিজের দেশের মানুষকে কেউ মারতে পারে এমন চিন্তা করা যায়?

তিনি বলেন, তারেক জিয়া ২০১৮ সালে মনোনয়ন বাণিজ্য করে হাজার হাজার কোটি টাকার বাণিজ্য করেছে। চুয়াডাঙ্গা বিএনপিকে বলবো ষড়যন্ত্র করবেন না। প্রধানমন্ত্রীর উন্নয়নের কথা,দুরদর্শী নেতৃত্বকে পৃথিবীর সকল দেশ প্রশংসা করেছে।

তিনি দলীয় নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্য করে বলেন, আওয়ামীলীগকে কেন দেশের মানুষ ভোট দেবে? প্রতিটা মানুষকে তা বোঝাতে হবে। যোগাযোগ ব্যবস্থার অভূতপূর্ব উন্নয়নের কথা বলতে হবে। তাদেরকে বোঝাতে হবে এ উন্নয়নের সরকার বার বার দরকার, আওয়ামী লীগের সরকার বার বার দরকার। তিনি আরও বলেন, প্রধানমন্ত্রী স্মার্ট বাংলাদেশ গড়তে চেয়েছেন। আমি স্মার্ট চুয়াডাঙ্গা গড়তে চাই। আমি চাই নৌকা বিজয়ী হোক। নৌকার বিজয় মূলত আমাদের, আপনাদের সকলের বিজয়।

জামজামি ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সহসভাপতি এসএম আশরাফুল করীম রিপন শাহ‘র সভাপতিত্বে কর্মী সমাবেশে বিশেষ অতিথি ছিলেন জেলা আওয়ামীলীগের সাবেক তথ্য ও গবেষনা সম্পাদক ও ভাংবাড়িয়া ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান কাওসার আহমেদ বাবলু, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সাধারন সম্পাদক ও কুমারী ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ, জেলা যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক ও চিৎলা ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান জিল্লুর রহমান, পদ্মবিল ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান আবু তাহের বিশ^াস, কালিদাসপুর ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান ৭০“র অগ্নিসেনা বীর মুক্তিযোদ্ধা মঈন উদ্দিন পারভেজ, কুতুবপুর ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান শাখাওয়াত হোসেন টাইগার, জেলা কৃষকলীগের সভাপতি ও মোমিনপুর ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান গোলাম ফারুক জোয়ার্দ্দার,ডাউকি ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি নুরুল ইসলাম দিপু মাস্টার, গাংনী ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক ও সাবেক জেলা পরিষদের সদস্য রকিবুল ইসলাম, খাসকররা ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাবেক সভাপতি আনোয়ার হোসেন মাস্টার, জেলা যুবলীগের সদস্য ও সাবেক জেলা পরিষদের সদস্য তপন কুমার বিশ^াস। খাদিমপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাবেক সভাপতি ও সাবেক চেয়ারম্যান আব্দুল হালিম মন্ডলের উপস্থাপনায় উপস্থিত ছিলেন কুমারী ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাবেক সভাপতি রানা মন্ডল, আলমডাঙ্গা উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক রাসেল পারভেজ রাজু, জামজামি ইউনিয়নের ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সভাপতি সম্পাদকের মধ্যে ইসাহাক আলী, আসেম আলী, রইচ মোল্লা, ইজাল উদ্দিন, মতিয়ার রহমান, নাজমুল হুদা, মতিয়ার রহমান, মুক্তার আলী, কোরবান আলী, হায়দার আলী, লাল্টু রহমান প্রমুখ।

সর্বশেষ খবর
menu-circlecross-circle linkedin facebook pinterest youtube rss twitter instagram facebook-blank rss-blank linkedin-blank pinterest youtube twitter instagram