২৫শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ১১ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

এফবিআই' পরিচালক সহিদুল হক মোল্লা শিপলেনের দৃষ্টান্ত স্থাপন

প্রতিনিধি :
শরিফুল ইসলাম রোকন
আপডেট :
এপ্রিল ১৬, ২০২৪
54
বার খবরটি পড়া হয়েছে
শেয়ার :
| ছবি : 

দৃষ্টান্ত স্থাপন করলেন এফবিসিসিআই'র পরিচালক মোল্লা গ্রুপের চেয়ারম্যান ও চুয়াডাঙ্গা -আলমডাঙ্গার সন্তান সহিদুল হক মোল্লা শিপলেন। সরকারের পাশাপাশি তিনি অতি দরিদ্র গৃহহীনদের ঘর নির্মাণ করে দিয়েছিলেন। শুধু গৃহ নির্মাণ করে দিয়েই দায়িত্ব শেষ করেন নি। তাদের সুখ-দু:খে সাথে আছেন। ঈদ উপলক্ষে সেই সকল পরিবারের জন্য পাঠিয়েছেন আকর্ষণীয় ঈদ উপহারের ডালি।

সারা দেশের মত আলমডাঙ্গা উপজেলায় গৃহহীনদের প্রধানমন্ত্রীর উপহার হিসেবে গৃহ নির্মাণ করে দেওয়া হয়।

আলমডাঙ্গা জেলার সবচে বড় উপজেলা। এ উপজেলার সকল গৃহনীনকে গৃহ নির্মাণ করে দেওয়া অসম্ভব। এমন সঙ্কটে পাশে দাঁড়িয়েছিলেন দেশের সবচে বড় ব্যবসায়ী সংগঠন এফবিআই'র পরিচালক, মোল্লা গ্রæপের চেয়ারম্যান সহিদুল হক মোল্লা শিপলেন। তিনি উপজেলার বিভিন্ন গ্রামের ৫ গৃহহীন অসহায় পরিবারের জন্য পাকা ঘর নির্মাণ করে দেন। যাদের গৃহ নির্মাণ করে দিয়েছেন তারা হলেন - উপজেলার সোনাতনপুরের জবেদ আলীর ছেলে আব্দুল মান্নান, ভোলারদাইড়ের আরশেদ আলীর ছেলে বুদ্ধি প্রতিবন্ধী ঠান্ডুর রহমান, একই গ্রামের করিম বক্সের মেয়ে মুঞ্জিরা খাতুন, মাঠ পাঁচলিয়ার নায়েব আলী ও ডাউকী গ্রামের তোতা।

শুধু লোক দেখানোর জন্য সহিদুল হক মোল্লা গৃহ নির্মাণ করে দেন নি যে তার বড় প্রমাণ তিনি সুখ-দুঃখে এই সকল হতদরিদ্র মানুষের সাথে আছেন। গত ঈদুল ফিতর উপলক্ষে তাদেরকে আকর্ষণীয় ঈদ উপহার ডালি পাঠিয়েছেন। প্রতিটি ডালিতে ৫ কেজি সাধারণ চাল, ১ কেজি পোলাউয়ের চাল, ২ কেজি আলু, ১ কেজি ডাল, ১ প্যাকেট সেমাই, মোরগ, চিনি, দুধ, মসলা - কী নেই! উপহার ঝুড়ি র‌্যাপিং পেপার দিয়ে মুড়িয়ে রঙিন ফিতা দিয়ে বেঁধে দৃষ্টিনন্দন করে গ্রহীতাদের হাতে তুলে দেওয়া হয়।

উপহার হাতে পাওয়ার পর সোনাতনপুরের আব্দুল মান্নান জানান, "আমি কিচু বুলতি পারবোনান গো। আমি কান্দে ফেলবোনে। মানুষ এত ভালো হয়! আমরা কুনুদিন পুলাউ খাইনি। অনেকদিন গোস্ত খাইনি।"

উপহার সামগ্রী তুলে দেওয়ার সময় সহিদুল হক মোল্লা শিপলেন বলেন, "আমাদের মত দেশের সরকারের একার পক্ষে সবকিছু করা সম্ভব নয়। দরিদ্র জনগোষ্ঠীর ভাগ্যের উন্নয়নে সরকারের পাশাপাশি দেশের সামর্থবান ব্যক্তিদের এগিয়ে আসতে হবে। আমাদের দেশের বিরাট জনগোষ্ঠী হতদরিদ্র। তাদের উন্নয়নবঞ্চিত রেখে দেশের সার্বিক উন্নয়ন সম্ভব নয়। তাদের ভাগ্যের উন্নয়ন ঘটিয়ে উন্নয়নের মুল স্রোতধারায় নিয়ে যেতে হবে। এটা তাদের প্রতি করুনা নয়। এটা তাদের প্রাপ্য হক।"

উপহার সামগ্রী প্রদানের সময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন টিএল এ মোল্লা গ্রুপের স্বত্ত্বাধিকারী লিয়াকত আলী মোল্লা লিপু, অপর স্বত্ত্বাধিকারী আমিনুল ইসলাম অপু মোল্লা ও জাহাঙ্গীর আলম টিংকু মোল্লা।

সর্বশেষ খবর
menu-circlecross-circle linkedin facebook pinterest youtube rss twitter instagram facebook-blank rss-blank linkedin-blank pinterest youtube twitter instagram