২০শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৭ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

আলমডাঙ্গা আগু‌নে পুড়ে ছাই ২শ বিঘা পান বরজ

প্রতিনিধি :
শরিফুল ইসলাম রোকন
আপডেট :
এপ্রিল ১৪, ২০২৩
30
বার খবরটি পড়া হয়েছে
শেয়ার :
| ছবি : 


মুন্সিগঞ্জ প্রতিনিধি: আলমডাঙ্গার খাদিমপুরের বানাখালী মাঠে ভয়াবহ অগ্নিকান্ডে প্রায় ২ শত বিঘা বান বরজ পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। ১৩ এ‌প্রিল বৃহস্প‌তিবার বেলা সাড়ে ১১ টার দিকে এই ঘটনা ঘটে। প্রাথমিক ভাবে ধারনা কর হচ্ছে ভুট্টা ক্ষেতের নাড়া পোড়াতে গিয়ে এই অগ্নি কান্ডের ঘটনা ঘটে।


প্রতক্ষ্যদর্শী সূত্রে জানাই, খাদিমপুর ও শিয়ালমারি গ্রামের মাঝামাঝি বানাতখালী খালের মাঠে একটি পান বরজে আগুন লাগে। সেখান থেকে মুহুত্বের মধ্যে গোড়া মাঠে পানের বরজে আগুন ছড়িয়ে পড়ে। আগুনের লেলিহান শিখা দাউদাউ করতে জ্বলতে থাকে। দাউদাউ করে জ্বলতে থাকা আগুনের ফুলকি শিয়ালমারি মাঠে পড়লে সেখানেও আগুন ধরে যায়। মিয়ালমারি মাঠের অনেক গুলো পান বরজ পুড়ে যায়। সংবাদ পেয়ে চুয়াডাঙ্গা ও আলমডাঙ্গা দুটি ইউনিটের ফায়ার সার্ভিস এন্ড সিভিল ডিফেন্সের র্কমীরা আগুন নিয়োন্ত্রনে আনার চেষ্টা করে। আগুন নিয়োন্ত্রনে আনতে ফায়ার সার্ভিস কর্মীদের বেগ পেতে হয়।


এ ব্যপারে আগুনে পুড়ে যাওয়া পান বরজ চাষি খাদিমপুর গ্রামের মিলু, লাড্ডু, হাসমত, রশিদ, ওল্টু, শিয়ালমারী গ্রামের মকবুল, মোমিন, শিপন, রুহুল আমিন, পলাশ, ফজলু, লালন, টিুপ জলিল বলেন, মাঠে অনেকই ঋণ নিয়ে মাঠে পান বরজ করেছে, চৈত্র মাসে পানের দাম বেশি থাকে তাই, সবাই পান বরজে পান রেখে দিয়েছে। বিঘা প্রতি পান বরজ করতে প্রায় ১ লাখ টাকা খরচ হয়, প্রতিটা পান বরজে প্রায় ২ লাখ টাকার পান ছিল। মাঠের সম্পূর্ন পান বরজ পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। কিছুই অবশিষ্ট নেই। এই পান বরজ পুড়ে অনেকই সর্বশান্ত হয়ে গেছে। প্রতিটা পান বরজ চাষি স্যালোমেসিং দিয়ে নিজেরা আগুন নিয়োন্ত্রনে আনার চেষ্টা করেছে। কিন্তু এলোমেলো হাওয়ায় আগুন দ্রুত এক মাঠ থকে অন্য মাঠে ছড়িয়ে পড়েছে। এ ক্ষতি পুশিয়ে দেওয়ার নয়।


চুয়াডাঙ্গা ফায়ার সার্ভিস এন্ড সিভিল ডিফেন্সের ডিউটিরত অফিসার সেন্টি চাদঁ মিয়া বলেন, বেলা সাড়ে ১১ টার দিকে পান বরজে আগুন লাগে, চুয়াডাঙ্গা ও আলমডাঙ্গা ফায়ার সার্ভিসের দুটি ইউনিটের কর্মীরা আগুন নিয়েন্ত্রনে আনে।
সংবাদ পেয়ে আলমডাঙ্গা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রনি আলম নূর, আলমডাঙ্গা কৃষি সম্প্রসারন অফিসার সোহেল রানা ঘটনা স্থলে ছুটে আসেন, ঘটনা স্থল পরিদর্শন কালে আলমডাঙ্গা উপজেলা নির্বাহী অ‌ফিসার বলেন, খাদিমপুরের বানাতখালী মাঠে কেবা কাহারা ভুট্টা ক্ষেতে আগুন দিলে সেখান থেকে আগুনের সূত্রেপাত, বাতাশের কারণে আগুন ভুট্টা ক্ষেত থেকে চারিদিকে ছড়িয়ে পড়লে মাঠের প্রায় ২ শত থেকে আড়াই শত বিঘা পান বরজ পুড়ে যায়। কেউ যদি আগুন লাগিয়ে থাকে থানা পুলিশ খতিয়ে দেখে আইনগত ব্যবস্থা নেবে।

আমরা স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের কাছে বলেছি যেন কোন প্রকারে আগুন দিয়ে ভুট্টা ক্ষেত পরিস্কার না করা হয়। মানুষ সচেতন হলে এরকম অগ্নি কান্ডের ঘটনা আর ঘটবে না। যে ক্ষতি হয়েছে তার জন্য সরকার দেখবে। সবাইকে সচেতন হওয়ার আহবান জানান তিনি।

সর্বশেষ খবর
menu-circlecross-circle linkedin facebook pinterest youtube rss twitter instagram facebook-blank rss-blank linkedin-blank pinterest youtube twitter instagram