১৮ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৩রা শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মীরসরাইয়ের পাহাড় থে‌কে প‌ড়ে ঝর্ণার পা‌নি‌তে ডু‌বে মে‌ডি‌কেল কলেজের শিক্ষার্থি আলমডাঙ্গার আনা‌সের মৃত্যু

প্রতিনিধি :
শরিফুল ইসলাম রোকন
আপডেট :
ফেব্রুয়ারি ১৬, ২০২৪
189
বার খবরটি পড়া হয়েছে
শেয়ার :
| ছবি : 

মেডিকেল কলেজে এমবিবিএস পড়ুয়া মেধাবী ও সুদর্শন শিক্ষার্থি আল শাহরিয়ার আনাসের দুর্ঘটনায় মৃত্যুতে শোকাভিভূত হয়ে পড়েছে আলমডাঙ্গা শহর। আল শাহরিয়ার আনাস আলমডাঙ্গা বণিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক ও আলমডাঙ্গার বিশিষ্ট ব্যবসায়ী খন্দকার আব্দুল্লাহ আল মামুনের বড় ছেলে। আনাস শহীদ মনসুর আলী মেডিকেল কলেজের ১ম বর্ষের শিক্ষার্থী ছিলেন।


চট্টগ্রামের মিরসরাইয়ে বেড়াতে গিয়ে খৈয়াছড়া পাহাড় থেকে পড়ে ঝর্ণার পানিতে ডুবে মারা যান তিনি। পরে তার লাশ উদ্ধার করা হয়। বৃহস্পতিবার (১৫ ফেব্রæয়ারি) বিকেলে আনাসের অকাল মৃত্যুর ঘটনা ঘটে।


আনাস ঢাকার উত্তরার শহীদ মনসুর আলী মেডিকেল কলেজের ১ম বর্ষের শিক্ষার্থী ছিলেন।


শাহরিয়ারের সহপাঠী অভিজিৎ কর্মকার জানান, তিনি, অভিজিৎসহ মেডিকেল কলেজের সাত বন্ধু একটি বাসায় ভাড়া থাকেন। সবাই একসঙ্গে সকাল সাড়ে ১০টায় মিরসরাইয়ের খইয়াছড়া ঝরণা দেখতে যান। বেলা আড়াইটার দিকে আল শাহরিয়ার দলছুট হয়ে ঝরনার চতুর্থ ধাপ থেকে পা পিছলে নিচের একটি কূপে পড়ে যান। পরে সেই কূপ থেকে মুমূর্ষু অবস্থায় তাঁকে উদ্ধার করা হয়।


অভিজিৎ বলেন, ‘দুর্গম জায়গা হওয়ায় সময়মতো চিকিৎসা দেওয়া যায়নি। সেকারণে শাহরিয়ারের মৃত্যু হয়। জাতীয় জরুরি সেবা নম্বর ৯৯৯-এ কল করে আমরা সহযোগিতা চাইলে ফায়ার সার্ভিস ও পুলিশ সদস্যরা এসে শাহরিয়ারকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যান।’


মিরসরাই ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের স্টেশন কর্মকর্তা ইমাম হোসেন পাটোয়ারি বলেন, খবর পেয়ে খৈয়াছড়া ঝরনা কূপ থেকে মরদেহ উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।


মিরসরাই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের দায়িত্বরত চিকিৎসক ডা. এরশাদ উল্ল্যাহ বলেন, বৃহস্পতিবার বিকেলে শাহরিয়ার নামে একজনকে উদ্ধার করে ফায়ার সার্ভিসের লোকজন এবং তার বন্ধুরা হাসপাতালে নিয়ে আসে। হাসপাতালে আসার আগেই মৃত্যু হয়েছে।


আনাসের বড় চাচা বিশিষ্ট ব্যবসায়ী খন্দকার গোলাম আজম বিটু জানান, মেডিকেল কলেজের সাত শিক্ষার্থী চট্টগ্রামের মিরসরাইয়ে বেড়াতে গিয়েছিল। তারা পাহাড়ের ঝরনায় গোসল করতে যায়। আনাস সাঁতার না জানায় পাহাড়ের ওপর দাঁড়িয়ে ছিল। হঠাৎ পা পিছলে নিচে পড়ে গেলে পানিতে ডুবে মারা যায়।
জানা যায়, আনাস অত্যন্ত মেধাবী ছাত্র ছিলেন। আলমডাঙ্গার আল ইকরা একাডেমি থেকে এসএসসি পাস করে রাজশাহী কলেজে এইচএসসি ভর্তি হন। এরপর তিনি ঢাকার উত্তরায় শহীদ মনসুর আলী মেডিকেল কলেজে ভর্তি হন।


প্রাণ প্রাচুর্যে ভরপুর সুদর্শন ও মেধাবী ছাত্র আনাসের আকস্মিক মৃত্যু সংবাদ আলমডাঙ্গায় পৌঁছলে গতকাল বৃহস্পতিবার শহররের ব্যস্ততা ক্ষণিকের জন্য থেমে যায়। শোকস্তব্ধ হয়ে যায় ব্যস্ততম শহর। অকালে মেধাবী সন্তানকে হারিয়ে নাগরিক ব্যস্ততা যেন শোকবিহ্বলে পরিণত হয়।


পরিবারসহ শহরে বন্ধু-বান্ধবমহলে শোকের ছায়া নেমে আসে। মা-বাবাসহ স্বজনদের বুকফাটা আহাজারিতে বাতাস ভারি হয়ে উঠে!

সর্বশেষ খবর
menu-circlecross-circle linkedin facebook pinterest youtube rss twitter instagram facebook-blank rss-blank linkedin-blank pinterest youtube twitter instagram