সাম্প্রতিক

ভাঙ্গায় পুলিশি ‘নির্যাতনে’ যুবকের মৃত্যু

ভাঙ্গা উপজেলায় পুলিশি নির্যাতনে আসাদুল হাওলাদার (২৫) নামে এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে।

শনিবার দুপুরে উপজেলার আজিমনগর ইউনিয়নের মিয়াপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। আসাদুল মিয়াপাড়া গ্রামের ইসমাইল হাওলাদারের ছেলে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, দুপুরে ভাঙ্গা থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মুকুল ও এসআই রাসেলসহ একদল পুলিশ মিয়াপাড়া গ্রামে গিয়ে আসাদুল ও জহুরুল নামে দুই যুবককে আটক করে।

পরে তাদের দুজনকে এলাকার নুরু মিয়ার পুকুর পাড়ে নিয়ে যান। এ সময় আটক দুজনের কাছে মোটা অংকের টাকা দাবি করা হয়। এ নিয়ে বনিবনা না হওয়ায় পুলিশ তাদের ওপর নির্যাতন শুরু করে।

একপর্যায়ে আসাদুল ও জহুরুল সেখান থেকে দৌড় দিলে পুলিশ তাদের পিছু ধাওয়া করে। পুলিশের তাড়া খেয়ে তারা দুইজনই পুকুরে পড়ে যান। এসময় পুলিশ পুকুর ঘিরে ফেলে গুলি করার ভয় দেখালে জহুরুল পানি থেকে উঠে আসে।

কিন্তু আসাদুল উঠে না আসায় পুলিশের পিস্তলের চেইন (চিকন শিকল) তার গলায় পেঁচিয়ে পাড়ে তুলে আনা হয়। এর কিছু পরেই আসাদুল মাটিতে লুটিয়ে পড়ে মৃত্যু হয়।

এদিকে, আসাদুলের মৃত্যুর পরপরই এলাকাবাসী বিক্ষুব্ধ হয়ে উঠলে জহুরুলকে ছেড়ে দিয়ে পুলিশ দ্রুত ঘটনাস্থল ত্যাগ করে। বর্তমানে এলাকায় চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে।

তবে অভিযোগ অস্বীকার করে ভাঙ্গা থানার পরিদর্শক (ওসি, তদন্ত) মো. হারুন বলেন, আমরা আসাদুলকে আটক করিনি। শুধু মাত্র জহুরুলকে আটক করেছিলাম। কিন্তু পরে তাকে ছেড়ে দিয়েছি।