সাম্প্রতিক

বাংলাদেশের সিলেটে পিরানহা মাছ জব্দঃ মেয়র আরিফ

সিলেট নগরীর বন্দরবাজার এলাকা থেকে ‘মানুষখেকো’ বা ‘রাক্ষুসে’ হিসেবে পরিচিত বিষাক্ত পিরানহা মাছ জব্দ করে সেগুলো আগুনে পুড়িয়ে ধ্বংস করেছেন সিসিক মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী। শনিবার সন্ধ্যার পর এক অভিযানে এসব মাছ ধ্বংস করেন তিনি। এ সময় বিভিন্ন প্রজাতির আরো কয়েক মণ মাছ জব্দ করা হয়।

সিসিক সূত্র জানায় যায়, সিলেট জেলা পরিষদের সামনের সড়ক দখল করে বেশ কয়েকজন মাছ ব্যবসায়ী মাছ বিক্রি করছিলেন। এতে সড়কে যানজট সৃষ্টি হচ্ছিল। বিষয়টি খেয়াল করে শনিবার সন্ধ্যার পর সিসিকের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের সাথে নিয়ে অভিযানে যান আরিফুল হক চৌধুরী।

অভিযানে কয়েকজন ব্যবসায়ীর কাছ থেকে প্রায় এক মণ বিষাক্ত পিরানহা মাছ জব্দ করা হয়। পিরানহা মাছ বাংলাদেশে উৎপাদন, বিক্রয় নিষিদ্ধ। এটি মানুষখেকো মাছ হিসেবে পরিচিত। জব্দকৃত মাছ নগর ভবনের সামনে নিয়ে পুড়িয়ে বিনষ্ট করা হয়।

এদিকে, অভিযানের সময় অবৈধভাবে সড়কে বসে মাছ বিক্রি করায় গ্রাসকার্প, সরপুঁটি, পাঙ্গাশসহ বিভিন্ন প্রজাতির প্রায় ৫-৬ মণ মাছ জব্দ করা হয়। পরে সেগুলো নগর ভবনে নিয়ে নিলামে তোলা হয়। নিলাম থেকে প্রাপ্ত টাকা সিটি করপোরেশনের বিবিধ অ্যাকাউন্টে জমা হবে বলে জানা গেছে।

এ প্রসঙ্গে মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী বলেন, পিরানহা মাছ বাংলাদেশে নিষিদ্ধ। এটি ভয়ঙ্কর প্রজাতির মাছ। এগুলো ব্যবসায়ীরা বিক্রি করছিল। তাছাড়া তারা সড়কে অবৈধ বসে যানজট তৈরি করছিল। তাই অভিযান চালানো হয়।

অভিযানে অন্যান্যের মধ্যে সিসিকের পরিচ্ছন্ন শাখার কর্মকর্তা হানিফুর রহমান, উপসহকারী প্রকৌশলী তানভীর আহমদ, মেয়রের ব্যক্তিগত সহকারী মুহিবুল ইসলাম ইমন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।