সাম্প্রতিক
পুলিশ জনগনের বন্ধু
পুলিশ জনগনের বন্ধু

পুলিশ জনগনের বন্ধু

পুলিশ জনগনের বন্ধু

পুলিশ জনগনের বন্ধু

ঘটনা এক:

আজ প্রথম বার বাইরে ইফতার করলাম।পথের পাশের এক রেস্তরায় বসে ইফতার শেষ করলাম।সারাদিন বাইরের গরমে আমি শেষ।ইফতার করার পরে আমার মাথা ঘুরু ঘুরু অবস্থা। একটু দূরে মসজিদ। পাশেই দেখি অস্থায়ী একটি পুলিশ ক্যাম্প।ভিতরে নামাজ এর তাকবির দিচ্ছে।কি মনে হল ভাবলাম যায় এখানেই নামাজ পরি। কয়েকজন ডিউটি রত পুলিশ ভাই জামাত করে নামাজ পরছে।আমিও দাড়িয়ে গেলাম।ছোট্ট জায়গা। মাথার সামনে সবাই তাদের অস্ত্র গলো ঢেকে রেখেছে।যত বার সিজদা দিয় অস্ত্র গুলো নড়ে চড়ে ওঠে।আমি ভাবতেছি, এইভাবে এসে জামাতে দাড়িয়ে যাওয়া ঠিক হল কিনা।জামাত শেষে সুন্নত নামাজের আগে দেখি এক পুলিশ ভাই আর এক পুলিশ ভাইকে বলছে, সরে দাড়ান ভাই এর জায়গা কম হচ্ছে।যাক,তাইলে আর বিপদ নাই। নামাজ শেষ করে কুশলাদী বিনিময় হল।আমি সারাদিন রোজায় রেখে, গাড়িতে এখানে সেখানে গিয়ে,কিছু কেনাকাটা করেই কাহিল, ইফতার এর পরে আর নড়তে পারিনা।আর পুলিশ ভাইরা সারাদিন ডিউটি করে সামান্য ইফতার আর নামাজ শেষ করেই দিব্বি তৈরি হচ্ছে ডিউটি করার জন্য। আমাদের নিরাপত্তা দেবার জন্য… তার পর আমরা তাদের গালি দিই।

ঘটনা দুই:

বছর কয়েক আগে আমার এক নানাভাই এস আই হিসাবে পুলিশ এ যোগদান করেন।এখন এস বি তে কর্মরত।এক রোজার দিন তার ম্যাচে ছিলাম। সন্ধ্যা রাতে দেখা হল,আমি রুমে থাকলাম।উনি বেরিয়ে গেলেন।ঈদে মানুষ ঘরে ফিরবে,নিরাপত্তা দিতে হবে তাদের।মহাসড়ক গুলোতে সারা রাত জেগে পাহারা দিতে হবে। আসলেই সেহেরী র সময়।একসাথে সেহেরী করলাম।শুনি সকাল ৭টা থেকে নাকি আবার ১২ ঘন্টার ডিউটি। তার পরও আমারা তাদের গালি দিই।

ঘটনা তিনঃ

দেশ ব্যাপী জঙ্গীদের উংপাত খুব বেড়েছ।তাদের ধরতে সরকার খুবই প্রশংসনীয় উদ্যোগ নিয়েছে।তাদের বিরুদ্ধে যৌথ অভিযান পরিচালনা করছে। মিডিয়া বলে গত ৩ দিন এএ এখন পর্যন্ত ৭০০০+ আটক হয়েছ।চলবে আরো ৪ দিন। যে অন্যায় করবে আইনের আওতায় তাকে আনতেই হবে। কিন্তুু সবাই মনে করে এই পুলিশ বাহিনী র কিছু সদস্য কিছু সদস্য এই ৭দিন কে তাদের ঈদের খরচ মেটানোর উংস হিসাবে পালন করবে। ঘটনা এক,কিংবা ঘটনা দুই যেমন আমি নিজে দেখে ছি।ঠিক তেমন, আমার অভিঙ্গতা বলে ঘটনা তিন ও বাস্তবতার সাথে সম্পকৃত। পুলিশে ভাইরা,আপনাদের হাজার ও কষ্ট, আপনাদের হাজার ত্যাগ,আপনাদের হাজার চেষ্টা, সব সবকিছু এই সামান্য গুটি কয়েক অসাধু মানুষের কারনে শেষ হয়ে যাচ্ছে। আমরা সাধারন মানুষ কিছুই করতে পারবো না,আপনারা নিজেরাই পারবেন আপনাদের মাঝে লুকিয়ে থাকা এই ক্ষুদ্র সংখ্যাকে মোকাবেলা করে আপনাদের সন্মানকে সমুন্নত রাখতে। সাধারন মানুষ মন থেকে বলার জন্য ব্যাকুল হয়ে বসে আছ….. পুলিশ জনগনের বন্ধু।

আব্দুল্লাহ আল মামুন (লেখক,সমাজকর্মী)

mamun.ew5@gmail.com