সাম্প্রতিক

নদী পথে দুর্ঘটনা রোধে ব্যবস্থা

 নদী পথে দুর্ঘটনা রোধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনের নির্দেশ দিয়েছে নৌ-পরিবহন মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটি।

একই সাথে সমুদ্র পরিবহন অধিদপ্তর কর্তৃক নদী পথে দুর্ঘটনা রোধে কী কী পদক্ষেপ গ্রহণ করা যায় তার একটি সুস্পষ্ট প্রস্তাব কমিটির আগামী বৈঠকে দিতে বলা হয়।
বৃহস্পতিবার জাতীয় সংসদের ‘নৌ-পরিবহন মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটি’ র ১১তম বৈঠকে এ সুপারিশ করা হয়।
অপরদিকে আরিচায় নৌ দুর্ঘটনায় নিহতদের বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা এবং শোক-সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করা হয়।
কমিটির সভাপতি মেজর (অবঃ) রফিকুল ইসলাম বীর উত্তম এর সভাপতিত্বে সংসদ ভবনে বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন কমিটি সদস্য নৌ-পরিবহন মন্ত্রী মো. শাজাহান খান, মো. আব্দুল হাই, মো. হাবিবর রহমান, এম আব্দুল লতিফ এবং মো. আনোয়ারুল আজীম (আনার)।
কমিটির বৈঠকে বাংলাদেশ অভ্যন্তরীন নৌ-পরিবহন কর্পোরেশন (বিআইডব্লিউটিসি), বাংলাদেশ স্থল বন্দর এবং গভীর সমুদ্র বন্দর সম্পর্কে আলোচনা করা হয়।
বৈঠকে আরিচায় ল্যান্ড বেইজ ওয়ার্কশপ স্থাপন এবং বিশেষ পরিস্থিতিতে দেশের নৌ-পরিবহন সচল রাখতে জরুরি জ্বালানি সরবরাহ করার নিমিত্তে কমপক্ষে ২টি অয়েল ট্যাংকার রিজার্ভ রাখার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য মন্ত্রণালয়কে সুপারিশ করা হয়।
বৈঠকে খাগড়াছড়ির রামগড়ে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে স্থল বন্দর চালু করার এবং উত্তর ও দক্ষিণে যে সকল স্থল বন্দর আছে সে সকল স্থল বন্দরের নাম, বর্তমান অবস্থা, সমস্যাবলী, এসব বিষয়ে কী কী করণীয় তার একটি বিস্তারিত প্রতিবেদন কমিটির পরবর্তী বৈঠকে প্রদানের জন্য মন্ত্রণালয়কে সুপারিশ করা হয়।
বৈঠকে সমুদ্র পরিবহন অধিদপ্তর কর্তৃক নদী পথে বিভিন্ন দুর্ঘটনা রোধে কী কী পদক্ষেপ গ্রহন করা যায় তার একটি সুস্পষ্ট প্রস্তাব দিতে বলা হয়।