সাম্প্রতিক

খালেদা জিয়ার প্যারোলে মুক্তির পরিস্থিতি হয়নি: হানিফ

আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মাহবুবউল আলম হানিফ বলেছেন, খালেদা জিয়ার প্যারোলে মুক্তির মতো পরিস্থিতি তৈরি হয়নি।

তিনি আরও বলেন, সাধারণত দণ্ডপ্রাপ্ত কারও আত্মীয়-স্বজন মারা গেলে তাকে শেষ দেখা, শেষকৃত্যের জন্য কিংবা অসুস্থ হলে প্যারোলে মুক্তির বিষয়টি আসে। তবে আমার জানা মতে, তার তেমন কোনো পরিস্থিতি তৈরি হয়নি।

রোববার দুপুরে আওয়ামী লীগ সভাপতির ধানমণ্ডির রাজনৈতিক কার্যালয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এসব কথা বলেন।

খালেদা জিয়ার প্যারোলে মুক্তি রাজনৈতিক নয়, আইনি বিষয়- এমন মন্তব্য করে হানিফ বলেন, খালেদা জিয়ার মুক্তি পাওয়া না পাওয়া আইনি বিষয়। এখানে আওয়ামী লীগের কিছু করার নেই। তার প্যারোল আইনি বিষয়, রাজনৈতিক নয়।

খালেদা জিয়া মুক্তির দাবিতে বিএনপির করা কর্মসূচি প্রসঙ্গে আওয়ামী লীগের এই নেতা বলেন, রাজনৈতিক শান্তিপূর্ণ কর্মসূচিতে কোনো আপত্তি নেই। কর্মসূচি সফল না ব্যর্থ এটা বিএনপিই জানে। তবে যে কর্মসূচির সঙ্গে জনসমর্থন থাকে না সেটা সফল হয় না।

তিনি আরও বলেন, যারা আইনের শাসনে বিশ্বাসী তাদেরকে আইনের মাধ্যমেই দণ্ডপ্রাপ্ত কয়েদির মুক্তির জন্য চেষ্টা করতে হবে। বেগম খালেদা জিয়া আদালত কর্তৃক দণ্ডপ্রাপ্ত হয়ে কারাগারে আছেন। তাকে মুক্ত করতে হলে আইনি প্রক্রিয়ায় মুক্ত করতে হবে। এ ছাড়া দ্বিতীয় আরেকটি উপায় আছে, তা হলো রাষ্ট্রপতির কাছে তার অপরাধের দায় স্বীকার করে ক্ষমা প্রার্থনা করা। সেক্ষেত্রে রাষ্ট্রপতি যদি বিবেচনা করেন তাহলে ক্ষমা করতে পারেন। এ ছাড়া আন্দোলন করে খালেদা জিয়াকে মুক্ত করা সম্ভব নয়।

এ সময় অন্যদের মধ্যে আরও উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট মৃনাল কান্তি দাস, তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক আফজাল হোসেন, উপপ্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক আমিনুল ইসলাম আমিন, উপদফতর সম্পাদক ও প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারী ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহে আলম মুরাদ প্রমুখ।