সাম্প্রতিক

আবার সড়ক অবরোধঃ রাজধানী

সাম্প্রতিকী ডেস্কঃ বাসচাপায় বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্র আবরার আহমেদ চৌধুরীর নিহতের ঘটনায় রাজধানীতে টানা দ্বিতীয় দিনের মতো রাস্তায় নেমে সড়ক অবরোধ করেছেন বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা।

২০ মার্চ, বুধবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে রাজধানীর বসুন্ধরা আবাসিক গেট এলাকায় সড়কে তারা অবস্থান নিয়ে দ্বিতীয় দিনের মতো বিক্ষোভ করছেন।

এ ছাড়া ফার্মগেট এলাকায় বিজ্ঞান কলেজ ও পুরান ঢাকায় জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়সহ উত্তরা, যাত্রাবাড়ী হানিফ ফ্লাইওভারের পূর্বপাশেও অবস্থান নিয়ে শিক্ষার্থীরা সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভে নেমেছে।

এসব এলাকার সংশ্লিষ্ট থানা পুলিশের দাযিত্বরত কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, তারা সতর্ক অবস্থায় আছেন, যাতে কোনো প্রকার অপ্রীতিকর ঘটনা না ঘটে।

১৯ মার্চ, মঙ্গলবার ঘটনার দিন আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের শান্ত করতে সকাল সাড়ে ১০টার দিকে যমুনা ফিউচার পার্কের সামনে ঘটনাস্থলে এসে শিক্ষার্থীদের সঙ্গে তাদের দাবিদাওয়া নিয়ে কথা বলেন ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র আতিকুল ইসলাম। তখনই তিনি দ্রুততম সময়ে সব ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাস দেন।

মেয়র আতিকুল জানান, প্রচলিত বিধান অনুযায়ী বাসের চালক ও হেলপারের বিচার করে শাস্তি দেওয়া হবে। দ্রুততম সময়ে স্পিডব্রেকার, জেব্রা ক্রসিং ও ওভারব্রিজ নির্মাণের আশ্বাসও দেন তিনি। 

কিন্তু শিক্ষার্থীরা তার আশ্বাসে সন্তুষ্ট না হয়ে আগামী দশ দিনের মধ্যে ওই এলাকায় নিরাপদে রাস্তা পারাপারের জন্য ফুট ওভারব্রিজ নির্মাণসহ দোষীদের দ্রুত বিচারের আশ্বাস ঘটনাস্থলে এসে দেওয়ার দাবি জানিয়ে বুধবারও রাস্তা অবরোধ করে আন্দোলন করার ঘোষণা দেয়।

মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৭টার দিকে রাজধানীর প্রগতি সরণি এলাকায় যমুনা ফিউচার পার্কের সামনে বাসচাপায় নিহত হন বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব প্রফেশনালস’র (বিইউপি) শিক্ষার্থী আবরার আহমেদ চৌধুরী। এ ঘটনায় বাস চালককে আটক করা হয়েছে।

রাজধানীতে চলছে ট্রাফিক সপ্তাহ। এর মাঝে মঙ্গলবার সকালে জেব্রা ক্রসিং দিয়েই রাস্তা পার হচ্ছিলেন ২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষের ছাত্র আবরার। সেই জেব্রা ক্রসিংয়ের ওপরই ঘটল এই বাসচাপার ঘটনা।

জানা গেছে, বাসচাপায় নিহত বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্র আবরার হত্যা ঘটনায় তার বাবা অবসরপ্রাপ্ত ব্রিগেডিয়ার জেনারেল আরিফ আহমেদ চৌধুরী ইতোমধ্যে বাদী হয়ে গুলশান থানায় মামলা করেছেন।