সাম্প্রতিক

প্রতারণার ফাঁদে ফেলে নাটোরের সিংড়া এক ভূমি কর্মকর্তার যৌন কেলেংকারীর অভিযোগ

রাজু আহম্মেদ নাটোরঃ প্রতারণার ফাঁদে ফেলে নাটোরের সিংড়া উপজেলার চামারী ইউনিয়ন ভূমি কর্মকর্তা মোঃ রিয়াজুল ইসলাম সেলিমেরনামে যৌন কেলেংকারীর অভিযোগ পাওয়া গেছে। অভিযোগটি দায়ের করেছে স্বয়ং তার ঘনিষ্ঠজনমোঃ মনজুর -ই-মওলা সাব্বির।অভিযোগে বলা হয় প্রায় দেড় মাস আগে ৫এপ্রিল শুক্রবার বেলা ১১টায় সেলিম সাব্বিরকে ফোনকরে বলে ৬ এপ্রিল সকালে জমি সংক্রান্ত বিষয়ে এক লোক আসবে। সেজন্য সাব্বিরের বাড়িতে কথা বলার একটু সময় যেন পাওয়া যায়। সাব্বির সরল বিশ্বাসে বিষয়টিকে নেয়। কিন্তু পরদিন শনিবার দেখা যায় সেলিম একজন মহিলা নিয়ে উপস্থিত। বয়স আনুমানিক ৪০। সেলিমকে মহিলার ব্যাপারে জিজ্ঞাসা করলে বলে ঘরে বসতে দেন জমি নিয়ে আলাপ করবো। কিন্তু ঘরে বসতে দেবার পর সে সাব্বিরকে বলে একটু বাইরে আসেন কথা আছে। বারান্দায় গিয়ে বলে আমাকে আধা ঘন্টা সময় দেন আপনি দোকানে গিয়ে বসেন। এতে সাব্বির কিংকর্তব্যবিমূঢ় হয়ে বলে আপনি মহিলা নিয়ে এখুনি বেড়িয়ে যান। আমার বাসায় এসব চলে না। আমি কাউকে এ বিষয়ে এ্যালাউ করি না। তারপরোও সেলিম নাছোড়বান্দা হয়ে ১০ মিনিট সময় চায় এবং বলে মহিলার ¯পর্শ কাতর জায়গায় হাত দিয়ে আর চুমাচুমি করে চলে যাবো। এক পর্যায়ে সাব্বির নিরুপায় হয়ে একটা ঘর ব্যবহার করতে দেয়। পরে কোন এক জানালার পর্দা ফাঁক করে সেলিমের কাজ পর্যবেক্ষণ করতে থাকে যেন বাজে কোন কিছু না ঘাঁতে পারে। এক পর্যায়ে সেলিমের ঐ মহিলার সাথে করা ব্যবহারের ছবি ও ভিডিও করে।সাব্বিরের ভাষ্য অনুযায়ী, সে মহিলাকে যৌন ব্যাপারে অনাগ্রহ প্রকাশ হিসাবে দেখেছে কারণ মহিলা সেলিমকে তার গায়ে হাত দিতে দেয় নাই। সাব্বির জানালায় কান দিয়ে শুনেছে মহিলা বলছে আমার স্বামী আছে, সংসার আছে। আর সেলিম বলছে ক্যা, কিচ্ছু হবে না। জানালা দিয়ে পর্যবেক্ষণ করার এক ফাঁকে সাব্বির দরজায় আঘাত করে বলে সেলিম ভাই বেরিয়ে আসেন। পরে সেলিম মহিলাকে বাড়ি থেকে নিরাপদে বের করে দিয়ে বলে মহিলাটির বাড়ি ভাঁটোদাড়া আর তার স্বামী আহম্মেদপুর এক স্কুলের মাস্টারী করে। কিন্তু পরবর্তীতে খোঁজ নিয়ে তথ্যটা ভুয়া বলে বিবেচিত হয়।প্রত্যক্ষদর্শী সাব্বির হাজ্বী হওয়ায় সে সেলিম কে লুচ্চামি বা যিনা ধরনের কোন কাজ করবো না মর্মে ২ রাকাত নফল নামায আদায় করে কুরআনে হাত রেখে পাবন্দী হয়ে আল্লাহর পথে আসার আহ্বান জানাতে থাকে। কিন্তু সেলিম সে পথে না এসে মোবাইলে সাব্বির কে ভাগনা, ভ্যাস্তা আর কলেজে পড়–য়া ছেলেকে দিয়ে শারীরিকভাবে আহত করার হুমকি দেয়। সেলিম কে ইসলামের পথে পরিপূর্ণভাবে আসার জন্য যোগাযোগ মাধ্যমে স্ট্যাটাস দেয়া সহ বিভিন্ন রকমের ভয়ভীতি দেখালেও সে বলে এগুলা করলে কিচ্ছু হবে না। আমার কোন কিছুই কেউ করতে পারবে না।

x

Check Also

আদালতে খুনের ঘটনায় গাফিলতি খতিয়ে দেখা হচ্ছে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

কুমিল্লায় আদালতের এজলাসে বিচারকের সামনেই ছুরিকাঘাত করে ফারুক ( ২৮) নামে এক যুবককে হত্যা করার ...