সাম্প্রতিক

গাংনীতে দ্বিতীয় স্ত্রীকে ঘরে তুলতে বাধা দেওয়ায় প্রথম স্ত্রীকে মারধর

গাংনী প্রতিনিধিঃ গাংনী উপজেলার তেঁতুলবাড়ীয়া ইউনিয়নের চক কল্যাণপুর গ্রামের মতিয়ার দ্বিতীয় স্ত্রীকে নিয়ে ঘরে তুলতে গেলে, প্রথম স্ত্রী নার্গিস খাতুনকে লাঠি দিয়ে পিটিয়ে ডান হাত ভেঙ্গে দিয়েছে। সাথে বেধরক মারপিট করে ফেলে রাখে বাড়িতে। পরে নার্গিসের পরিবারের লোকজন খবর পেয়ে স্থানীয়দের সহায়তায় তাকে উদ্ধার করে গাংনী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ভর্তি করে।

রবিবার বিকেলে গাংনী উপজেলার কল্যাণপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। জানা গেছে, চককল্যাণপুর গ্রামের মজির উদ্দীনের ছেলে মতিয়ারের সাথে চুয়াডাঙ্গা জেলার আলমডাঙ্গা উপজেলার ভাংবাড়িয়া গ্রামের আতিয়ার হোসেনের মেয়ে নার্গিসের খাতুনের সাথের্ ১৭ বছর আগে পরিবারিকভাবে বিয়ে হয়। কিন্তু সম্প্রতিক সময়ে একই গ্রামের আব্দুল গনির মেয়ে চায়নার সাথে পরকিয়া করে দ্বিতীয় বিয়ে করেন মতিয়ার।
পরে রবিবার বিকেলে সেই বউকে নিয়ে ঘরে যায় মতিয়ার তাতে বাধ দেয় প্রথম স্ত্রী নার্গিস। এ সময় মতিয়ার লাঠি দিয়ে পিটিয়ে হাত ভেঙ্গে দেয় প্রথম স্ত্রী নার্গিসের।

নার্গিস সাংবাদিকদের জানান, ১৭ বছরের বিয়েতে প্রায় নির্যাতন করতো। কারণে-অকারণে আমার উপর অমানুষিক নির্যাতন করত তারপরেও তার সাথে সংসার করে আসছি।
এতকিছুর পরও সে দ্বিতীয় বিয়ে করে ঘরে তুলতে চাইলে বাধাঁ দি এ সময় সে আমাকে অমানুষিকভাবে লাঠিপেটা করে। স্থানীয়দের সহায়তায় আমার পরিবারের লোকজন আমাকে উদ্ধার করে গাংনী উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে নিয়ে আসে। 
এ বিষয়ে গাংনী থানায় একটি অভিযোগ করবে বলেও জানান নির্যাতিতা নার্গিস খাতুন।

গাংনী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি হরেন্দ্রনাথ সরকার জানান, আমার নিকট অভিযোগ আসলে তাৎক্ষনিক ব্যবস্থা নেব।