সাম্প্রতিক

কালীগঞ্জে ‘স্বেচ্ছাসেবক লীগ’ অফিসে মাদক ব্যবসা

স্টাফ রিপোর্টার, ঝিনাইদহঃ ঝিনাইদহ কালীগঞ্জে স্বেচ্ছাসেবক লীগের দলীয় কার্যালয়ে সিসি ক্যামেরা লাগিয়ে মাদক ব্যবসা করলেও শেষ রক্ষা হয়নি মাদক কারবারীদের। আটক করা হয়েছে নারীসহ দুইজনকে। বুধবার সকাল সাড়ে ১১টার দিকে কালীগঞ্জ শহরের কালীবাড়ি মোড়ের এই অফিসটিতে অভিযান চালায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর। আটকেরা হলেন, উপজেলার ফয়লা গ্রামের তোফাজ্জেল হোসেনের ছেলে কালীগঞ্জ উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাবেক সভাপতি ও সাবেক কাউন্সিলর বজলুর রশীদ নান্নু (৫০) ও নিশ্চিন্তপুর গ্রামের মতিয়ার রহমানের মেয়ে সোনিয়া আক্তার আকাশি (২১)। ঝিনাইদহের মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের উপপরিদর্শক আমিনুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, বজলুর রশীদ নান্নুর কাছ থেকে ৩০টি ইয়াবা ও ৫ বোতল ফেনসিডিল এবং সোনিয়ার কাছ থেকে ৫০টি ইয়াবা উদ্ধার করা হয়। এ সময় অফিসটিতে গিয়ে দেখা যায়, সাইন বোর্ডটিতে লেখা বাংলাদেশ আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগ, প্রধান কার্যালয়, উপজেলা শাখা, কালীগঞ্জ, ঝিনাইদহ। সাইন বোর্ডে ঝুলানো আছে লজিটেক কোম্পানির একটি সিসি ক্যামেরা। যেটা দিয়ে সামনের রাস্তার পুরো অংশ দেখা যায়। সামনে দিয়ে কেউ অফিসে প্রবেশ করলে তিনি ঘরের মধ্যে থেকে দেখতে পারবেন। এই অফিসটির পিছনে নদী। বজলুর রশিদ নান্নু যখন স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি ছিলেন,তখন ঠিক একই অফিস থেকে মাদকসহ গ্রেফতার হয়েছিল র‌্যাবের হাতে। দীর্ঘ কয়েক মাস জেল থেকে জামিনে ফিরে এসে আবার ঠিক দলীয় সাইনবোর্ড লাগানো অফিসে বসে মাদক ব্যবসা করছিল। অবশেষে বুধবার মাদকসহ ধরা খেল মাদক ব্যবসায়ি নান্নু।