সাম্প্রতিক

ভারতের সঙ্গে যুদ্ধের প্রস্তুতি পাকিস্তানের

পুলওয়ামা হামলার প্রতিক্রিয়ায় যে কোনো মুহূর্তে নিয়ন্ত্রণরেখা পেরিয়ে সেনা অভিযান চালাতে পারে ভারত, এ আতঙ্কে তটস্থ পাকিস্তান।

পাক অধিকৃত কাশ্মীরের বাসিন্দাদের সতর্ক করে দিয়েছে ইসলামাবাদ। রাতে আলো বন্ধ করে রাখার পাশাপাশি মাটির তলায় বাঙ্কার বানানোর নির্দেশও দিয়েছে পাক প্রশাসন।বালুচিস্তানের কোয়েটায় একটি হাসপাতালকে অতিরিক্ত চিকিৎসাসামগ্রী প্রস্তুত রাখতে চিঠি দিয়েছে পাকিস্তানের সেনা সদর দফতর। কাশ্মীরের নিয়ন্ত্রণ রেখা বরাবর অন্তত ছয়টি এলাকার প্রশাসনকে সম্ভাব্য ভারতীয় হামলার ব্যাপারে সতর্ক থাকার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

কাশ্মীর প্রশাসন এবং বেলুচিস্তানে মোতায়েন পাক সেনাবাহিনীর কাছে বৃহস্পতিবার প্রেরিত দুটি নির্দেশনামার বরাতে শুক্রবার এ খবর দিয়েছে টাইমস অব ইন্ডিয়া। ভারত হামলা চালালে তার পাল্টা জবাব দিতে পাকিস্তান সেনাবাহিনীকে পূর্ণ অনুমোদন দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। প্রতিক্রিয়ায় ভারতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিং বলেছেন, ‘পাকিস্তান তৈরি থাকলে আমরাও সম্পূর্ণ প্রস্তুত।’

পাকিস্তানের কোয়েটা ক্যান্টনমেন্টের সদর দফতর কোয়েটা লজিস্টিক এরিয়া (এইচকিউএলএ) থেকে জিলানি হাসপাতালে একটি নির্দেশনামা পাঠানো হয়েছে। ২০ ফেব্রুয়ারি পাঠানো নির্দেশনামায় ভারতের সঙ্গে সম্ভাব্য যুদ্ধের সময় কিভাবে চিকিৎসা সহায়তা দেয়া হবে সে বিষয়ে পরিকল্পনা গ্রহণ করতে বলা হয়েছে। সিন্ধু এবং পাঞ্জাব অঞ্চল থেকে কোয়েটায় আহত সেনা এবং বেসামরিক মানুষদের বেলুচিস্তানে পাঠানো হতে পারে বলেও এতে উল্লেখ করা হয়। আরও বলা হয়, সামরিক হাসপাতালে বিছানা খালি না হওয়া পর্যন্ত বেসামরিক হাসপাতালে সেনাদের চিকিৎসা অব্যাহত থাকবে। বেসামরিক হাসপাতালগুলোর মোট বিছানার ২৫ শতাংশ সেনা সদস্যদের জন্য সংরক্ষিত রাখার নির্দেশ দেয়া হয়েছে। একই নির্দেশ বেসরকারি হাসপাতালগুলোর জন্যও।

পাক-নিয়ন্ত্রিত কাশ্মীরের ভিমবের, নীলম, রাওয়ালকোট, কোটলি, ঝিলম, হাওয়েলি- এ গ্রামগুলোতে নেয়া হচ্ছে বিশেষ সতর্কতা। বাসিন্দাদের দল বেঁধে কোথাও না বেরোতে নির্দেশ দেয়া হয়েছে। মাটিতে গর্ত বানিয়ে বাঙ্কার তৈরি করতেও বলা হয়েছে বাসিন্দাদের। ভারতীয় অভিযানের সময় এ বাঙ্কারের ভেতর লুকিয়ে পড়তে বলা হয়েছে। একই সঙ্গে রাতে খুব প্রয়োজন না পড়লে আলো জ্বালাতেও নিষেধ করা হয়েছে। পশু পালকদের বাইরে বেরোতে নিষেধ করার পাশাপাশি কোনো সন্দেহজনক গতিবিধি দেখলেই স্থানীয় প্রশাসনকে জানানোর নির্দেশ জারি করা হয়েছে।

ভারতকে হুশিয়ারি দিয়ে রেখেছেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানও। ভারত যদি যুদ্ধের সূত্রপাত ঘটায় বা দুর্ঘটনাক্রমে হামলা চালায় পাকিস্তানের সশস্ত্র বাহিনীকে সন্দেহাতীত ও ব্যাপকভাবে জবাব দেয়ার অনুমোদন আগেভাগেই দিয়ে রাখলেন তিনি। বৃহস্পতিবার ইমরান খান ‘ন্যাশনাল সিকিউরিটি কমিটি’র সঙ্গে বৈঠকের পর এক সরকারি বিবৃতিতে এ অনুমোদন দেন। বিবৃতিটিতে বলা হয়, পাকিস্তান পুলওয়ামা হামলায় জড়িত নয়। কল্পনার ভিত্তিতে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে অভিযোগ করা হচ্ছে। পাকিস্তানের যুদ্ধ প্রস্তুতির জবাবে আজ তাক টেলিভিশনকে ভারতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ বলেন, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি দেশের সেনাবাহিনীকে হামলার সমুচিত জবাব দেয়ার অনুমোদন দিয়েছেন। বিশ্ব থেকে পাকিস্তান সম্পূর্ণ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে। পুলওয়ামা হামলার পর চীন ভারতের পক্ষ নিয়েছে। ইমরান খানের নাম উল্লেখ না করে তিনি বলেন, ‘তার এটা মনে করার কোনো প্রয়োজন নেই যে আমরা যুদ্ধের জন্য প্রস্তুত নই।’

কাশ্মীরিদের হয়রানি বন্ধে ১১ রাজ্যকে নোটিশ সুপ্রিমকোর্টের : পুলওয়ামা হামলার পর থেকেই দেশের বিভিন্ন অংশে আক্রান্ত হচ্ছেন কাশ্মীরি যুবক-যুবতীরা। তাদের ওপর হামলা রুখতে কেন্দ্রসহ ভারতের ১১টি রাজ্যকে উপযুক্ত ব্যবস্থা নেয়ার নোটিশ দিয়েছেন সুপ্রিমকোর্ট। রাজ্যগুলো হল- জম্মু-কাশ্মীর, উত্তরাখন্ড, হরিয়ানা, উত্তরপ্রদেশ, বিহার, মেঘালয়, ছত্তিশগড়, পশ্চিমবঙ্গ, পাঞ্জাব ও মহারাষ্ট্র। রাজ্যে রাজ্যে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানেও কাশ্মীরিদের আক্রান্ত হতে হচ্ছে। ভয়ে অনেকে রাজ্য থেকে কাশ্মীরে ফিরে যাচ্ছেন। এতে ব্যাঘাত ঘটছে তাদের পড়ালেখায়।

পাকিস্তানকে ধূসর তালিকাভুক্ত করল এফএটিএফ : পুলওয়ামায় জঙ্গি হামলার পর অর্থ সাহায্য করার ব্যাপারে পাকিস্তানকে গ্রে (ধূসর) তালিকায় রাখল ফিন্যান্সিয়াল অ্যাকশন টাস্কফোর্স (এফএটিএফ)। সন্ত্রাসীরা যাতে কোনো ভাবেই আর্থিক সাহায্য না পায় তা নিশ্চিত করতেই এমন পদক্ষেপ নিয়েছে প্যারিসভিত্তিক সংস্থাটি। এ সংস্থার সদস্য সংখ্যা ৩৮। শুক্রবার প্যারিসে এক বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত নেয় এফএটিএফ। সন্ত্রাস বন্ধ করতে পাকিস্তান যে প্রতিশ্রুতি দিয়েছে তা ঠিকমতো মানা হয়েছে কিনা সেটা চলতি বছরের জুন এবং অক্টোবরে খতিয়ে দেখা হবে। কথা রাখতে না পারলে দেশটিকে কালো তালিকাভুক্ত করা হবে।

x

Check Also

অনলাইন শপিং অ্যামাজনে বাংলাদেশের পতাকা সম্বলিত অন্তর্বাস ও শর্ট প্যান্ট

বিশ্বজুড়ে সুপরিচিত ই-কমার্স জায়ান্ট অ্যামাজন বাংলাদেশের পতাকা সম্বলিত অন্তর্বাস, শর্ট প্যান্ট বিক্রি করছে। অ্যামাজনে ১৪ ...