সাম্প্রতিক

তরুণদের জন্য জাকির নায়েকর নতুন বার্তা

বর্তমান দুনিয়ায় ডাক্তার জাকির নায়েক একজন অসাধারণ দায়ি ইলাল্লাহ। আল্লাহ সুবহানুতা’য়ালা তাকে মুখস্থবিদ্যা পারঙ্গমের সব কৌশলই দান করেছেন। ডা: জাকির নায়েকের তুলনা ডা: জাকির নায়েকই। যদিও অনেকে বলে থাকেন ডা: জাকির আহমদ দিদাতের ভাবশিষ্য। ডা: জাকির নায়েককে নতুনভাবে পরিচয় করিয়ে দেয়ার দরকার নেই।

সম্প্রতি আমার মালয়েশিয়া সফরের সময় এই বিশ্ববিখ্যাত মুবাল্লিগ ডা: জাকির নায়েকের সাথে সাক্ষাৎ হয়। সময়টা ছিল জানুয়ারি মাসের ২৭ তারিখ, রোববার বাদ আছর, আমরা মালেশিয়ার ফেডারেল রাজধানী পুত্রজায়াতে একসাথে জামায়াতে আছর নামাজ পড়ি। নামাজ বাদ ডাক্তার জাকির নায়েকের সাথে আলাপচারিতায় মিলিত হই।

ডাক্তার জাকির নায়েকের গবেষণা সহকারী ড. আমিনুল ও ড. ফদল এই দু’জনে আমাকে আলাপচারিতার সুযোগ করে দেন। আমি যখন ডা: জাকির নায়েককে বললাম, আমি কানাডার টরন্টোতে থাকি। পেশায় সাংবাদিকতা। আমার পোশাকি ভূষণ দেখে মনে হলো তিনি কিছুটা বিস্মিত হলেন। তারপর বিনীতভাবে বললেন- ‘আমার হাতে বেশি সময় নেই। একটু পরে আমার আরেকটি গুরুত্বপূর্ণ মিটিং আছে।’

আমার সাংবাদিক পরিচয় বলার পর আমি স্বভাব সুলভভাবে হঠাৎ প্রশ্ন করে বসলাম। উনি প্রশ্ন শোনার জন্য প্রস্তুত ছিলেন না। তারপরও তিনি নিজেকে সামলে নিলেন। উনার দুই গবেষণা সহকারী ড. আমিনুল ও ড. ফদলের দিকে তাকালেন। অবশেষে আবার আমার দিকে চোখ ফিরালেন।

তিনি ধীর স্থিরভাবে প্রশ্নের উত্তর দিলেন। তিনি বললেন- ‘এই মুহূর্তে আমার জবাব হচ্ছে, পাশ্চাত্যসহ বিশ্বের যুবক-যুবতীদের বলুন, তারা যেন কুরআন অর্থসহ বুঝে পড়েন। কারণ বস্তুবাদী সভ্যতা মানুষকে সময়ের দাস (গোলাম) বানিয়ে ফেলেছে।’ শুধু কুরআন এবং এই কুরআনই আগামী দিনের মানবসভ্যতাকে সব জুলুম-অন্যায় আর অপরাধ থেকে মুক্ত রাখতে পারে। ডা: জাকির নায়েকের উদ্দেশে আমার প্রশ্ন ছিলÑ আপনি এখন মালয়েশিয়াতে মুহাজির।

এই মুহূর্তে পশ্চিমা বিশ্বের যুবকদের জন্য আপনার কী ম্যাসেজ? পাশ্চাত্যের পতনমুখী, বস্তুবাদী সভ্যতার সামাজিক বন্ধনহীন, নিঃসঙ্গ-নিঃরস সমাজের সমালোচনা করতে গিয়ে ডা: জাকির নায়েক বিশ্ববিখ্যাত অমর কবি শেখ সাদীর একটি পঙ্ক্তি বললেন-‘ইলমে কে রাহ বহক্ক নানুমায়েদ জিহালাত আস্ত’ অর্থাৎ, ‘যে শিক্ষা বা ইলম সত্যের সন্ধান দেয় না, সেই বিদ্যা অধিক মূর্খতাই বৃদ্ধি করে’।

ডা: জাকির নায়েক জোর দিয়ে বললেন, তারই পরিণামে পশ্চিমা জগতে আজ পুরুষে-পুরুষে এবং নারীতে-নারীতে বিয়ে বৈধ ঘোষণা করেছে, যা গোটা মানবসভ্যতাকে ধ্বংসের দ্বারপ্রান্তে নিয়ে যাচ্ছে।

আমি যখন ডা: জাকির নায়েককে বললাম ভারত-পাকিস্তান আর বাংলাদেশের কতিপয় আলেম আপনাকে নিয়ে কঠোর ভাষায় গালিগালাজ করে থাকেন, এটা কেন? তিনি হেসে জবাব দিলেন, চরম ইসলামবিরোধী বিজেপি সরকার আমার নামে মিথ্যা অপবাদ দিচ্ছে। মামলা করেছে। পিচটিভি বন্ধ করে দিয়েছে।

পিচ স্কুল-মাদরাসাগুলোতে তালা ঝুলছে। আর কতিপয় সম্মানী আলেম আমার বিরুদ্ধে লেগেছেন। এটা দুঃখজনক। মানুষ হিসেবে আমার কোনো ভুল থাকলেও থাকতে পারে। ঐ সব আলেম যদি সত্যিই আমাকে সংশোধন করতে চান- তাহলে ওপেন পাবলিক ময়দানে কটাক্ষ না করে সরাসরি আমার সাথে যোগাযোগ করতে পারেন। এবং কি ভুল করছি তা সংশোধন করতে পারেন। কিন্তু না, তারা আমার সাথে বিজেপি সরকারের মতো আচরণ করে যাচ্ছেন।

আলহামদুলিল্লাহ। আল্লাহ সুবহানু তা’য়ালা আমাকে সবর (ধৈর্য) করার তৌফিক দান করুক। আমি কোনো আলেমকে কটাক্ষ করি না। কোনো ধর্মের বিরুদ্ধে কথা বলি না। কোনো জাতির কৃষ্টি-সভ্যতার বিরুদ্ধে বক্তব্য দেই না। আমি একজন ইসলামী মুবাল্লিগ বা ইসলাম প্রচারক। আমি প্রমাণ করতে চাই সব ধর্মের উৎস আল্লাহ সুবহানু তা’য়ালা থেকে। মানুষ তার নিজ ব্যবসায়িক লোভে ধর্মের নামে, তাদের নিজ নিজ ধর্মের মধ্যে অধার্মিক ভেজাল মিশ্রণ করেছে এবং এখনো করে যাচ্ছে। ধর্মের নামে অধার্মিক ব্যবসার অবসান হওয়া জরুরি। এতে বিশে^ শান্তি প্রতিষ্ঠা সহজতর হবে।