সাম্প্রতিক

আরও হামলার পরিকল্পনা ছিল সেই সন্ত্রাসী ট্যারেন্টের

নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চে দুই মসজিদে হামলার ঘটনায় আটক ট্যারেন্ট আরও হামলার পরিকল্পনা করেছিল বলে জানিয়েছেন দেশটির পুলিশপ্রধান। পুলিশ জানায়, পরবর্তী হামলার আগেই তাকে আটক করা হয়েছে। গত শনিবারে তাকে আদালতে নেয়া হলে ৫ এপ্রিল পর্যন্ত তার রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত।

গত সপ্তাহে দুই মসজিদে ওই সন্ত্রাসীর গুলিতে ৫০ জন নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় অন্তত অর্ধশতাধিক আহত হয়েছেন। ২৮ বছর বয়সী অস্ট্রেলীয় ব্রেনটন ট্যারেন্টের বিরুদ্ধে কর্তৃপক্ষ নরহত্যার অভিযোগ এনেছে।

বুধবার পুলিশ কমিশনার মাইক বুশ বলেছেন, কর্তৃপক্ষ বিশ্বাস করে যে আরও আক্রমণের পথে সন্দেহভাজনকে তারা থামিয়েছে।

তিনি বলেন, অনেক জীবন বেঁচেছে। তবে কোথায় পরবর্তী হামলার লক্ষ্য ছিল তা বলা হয়নি।

এদিকে নিহতদের মধ্যে প্রথম দুজনের শেষকৃত্য শেষে দাফন দেওয়া হয়েছে। এরা হলেন, ৪৪ বছর বয়সী খালেদ মোস্তফা ও তার ১৫ বছর বয়সী ছেলে হামজা।

শতাধিক ব্যক্তির নীরব উপস্থিতিতে মেমোরিয়াল পার্কে তাদের কবর দেওয়া হয়।

এদিকে নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী জেসিন্ডা আর্ডার্ন বুধবার ক্রাইস্টচার্চে আসেন এ ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্ততে সান্ত্বনা দিতে।

এক সংবাদ সম্মেলনে দেশটির প্রধানমন্ত্রী জেসিন্ডা আর্ডার্ন ঘোষণা করেন, মসজিদে হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় হতাহতদের স্মৃতি রাখার জন্য আগামী শুক্রবার দুই মিনিটের জন্য নিউজিল্যান্ড স্তব্ধ থাকবে।

এ সময় আর্ডার্ন বলেন, আমরা মুসলিম সম্প্রদায়ের সঙ্গে আছি, তাদের ভালোবাসি।

আর্ডার্ন আরও বলেন, আমাদের সবার সামনে চ্যালেঞ্জ হচ্ছে যে নিরাপত্তা নিশ্চিত করা। আমরা কখনও এমন পরিবেশের সঙ্গে আস্থা রাখতে পারি না, যেখানে সহিংস চরমপন্থী মতাদর্শ বিকাশ করতে পারে। এর অর্থ হচ্ছে বর্ণবাদ ও চরমপন্থা যেখানেই উত্থিত হবে সেখানে আমদের পৌঁছানো।

এ ছাড়ার নিউজল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী মুসলমান সম্প্রদায়ের সমর্থনে শুক্রবারের আজান দেশটির টিভি ও রেডিওতে প্রচারের ঘোষণা দেন।