সাম্প্রতিক

ওয়াশিংটনে বাংলাদেশ দূতাবাসে মাতৃভাষা দিবস পালিত

 ভাষা শহীদ দিবস এবং আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালন উপলক্ষে ওয়াশিংটন ডিসিতে বাংলাদেশ দূতাবাসের উদ্যোগে দুই দিনব্যাপী এক কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়।
কর্মসূচির প্রথম দিন ২১ ফেব্রুয়ারি সকালে দূতাবাস চত্বরে জাতীয় পতাকা অর্ধনমিতকরণের মধ্যদিয়ে কর্মসূচি শুরু হয়। যুক্তরাষ্ট্রে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মোহাম্মদ জিয়াউদ্দিন জাতীয় পতাকা উত্তোলন করেন। এ সময় জাতীয় সঙ্গীত পরিবেশন করা হয়। অনুষ্ঠানে দূতাবাসের সকল কর্মকর্তা-কর্মচারী উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানে দিবসটি উপলক্ষে দেয়া রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর বাণী পাঠ করা হয়।
অনুষ্ঠানে বক্তব্যে রাষ্ট্রদূত ১৯৫২ সালের ভাষা শহীদদের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জানান। তিনি ১৯৫২ সালে ভাষা আন্দোলনে অবদান রাখায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতি শ্রদ্ধা জানান। ভাষা শহীদদের আত্মার শান্তি কামনা করে বিশেষ মোনাজাত করা হয়। এ সময় দেশের অব্যাহতি শান্তি, সমৃদ্ধি ও অগ্রগতি কামনা করা হয়।
কর্মসূচির দ্বিতীয় দিন ২২ ফেব্রুয়ারি দূতাবাসের বঙ্গবন্ধু মিলনায়তনে ভাষা শহীদ দিবস এবং আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে এক আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়।
রাষ্ট্রদূত মোহাম্মদ জিয়াউদ্দিন তার শুভেচ্ছা বক্তব্যে ভাষা শহীদদের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জ্ঞাপন এবং বাংলাদেশের প্রতিষ্ঠাতা জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের অবদান গভীর শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করেন। অনুষ্ঠানে ম্যারিল্যান্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের ফেডারেল ও গ্লোবাল সেমিস্টার প্রোগ্রামের অধ্যাপক ও পরিচালক ড. জন বার্টন অতিথি বক্তা হিসেবে বক্তব্য রাখেন।
আলোচনা অনুষ্ঠান শেষে এক মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানেরও আয়োজন করা হয়। এতে বাংলাদেশ আফগানিস্তান, চীন, ভারত, প্যারাগুয়ে, ইউক্রেইন এবং শ্রীলংকার শিল্পীরা অংশ নেন। অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ দূতাবাসের কূটনীতিকগণ, বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের প্রতিনিধিরা, বিদেশি অতিথি ও প্রবাসী বাংলাদেশিরা সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান উপভোগ করেন।
অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ সরকারের চলচ্চিত্র ও প্রকাশনা অধিদপ্তর ‘আমার মাতৃভাষা শিরোনামে একটি প্রামাণ্য চিত্র দেখানো হয়।