সাম্প্রতিক

অন্তর্বাসেই হাজির অস্কারের উপস্থাপক

যে কোনো অনুষ্ঠান সঞ্চালনায় উপস্থাপক হলো প্রাণ। হাসি-ঠাট্টায় মুখরিত রাখতে হয় হলভর্তি দর্শকদের। আর তাদের পোশাক নিয়ে আলোচনাও থাকে তুঙ্গে। তবে এবার সবাইকে চমকে দিলেন অস্কার মঞ্চের উপস্থাপক নীল প্যাট্রিক হ্যারিস৷

অনুষ্ঠান চলার মাঝে হঠাৎ স্টেজে শুধু অন্তর্বাস পরে এসে হাজির হলেন হ্যারিস৷ সারা হল জুড়ে তখন চাপা হাসি৷ আসলে ‘বার্ডম্যান’ছবির একটি দৃশ্যের নকল করছিলেন তিনি৷
এবারের অস্কার সঞ্চালনায় শুরু থেকেই হাসির ফোয়ারা ছুটিয়েছিলেন হ্যারিস। প্রথমবার অস্কার উপস্থাপনা করতে এসে পূর্বসূরীর পথই অনুসরণ করলেন তিনি৷ হাসি-মজা গানে মাতিয়ে রাখলেন অস্কারের মঞ্চ৷অন্তর্বাসেই হাজির অস্কারের উপস্থাপক

শুরুটাই করলেন চমক দিয়ে৷ বললেন, আজ আমরা সম্মান জানাব ‘হোয়াইটেস্ট’দের…তারপর ভুল সংশোধন করে নিয়ে বললেন ‘ব্রাইটেস্ট’দের৷ নিছক মজাতেই হেসে উঠলেন হলার দর্শক৷ তবে এ মন্তব্যে সম্তবত মৃদু খোঁচাও রাখলেন হ্যারিস৷ কেননা এবারের নমিনেশনে প্রায় সকলেই ছিলেন শ্বেতাঙ্গ৷
গানে, কথায় সারাক্ষণই চালালেন টুকরো টুকরো মজা৷ রিজ উইদারস্পুনকে ডাকতে গিয়ে বললেন, এবার যিনি পুরস্কার দেবেন তিনি এত ‘লাভলি’যে, কেউ তাঁকে ‘স্পুন’-এ তুলে খেয়ে ফেলতে পারেন৷ শোনামাত্র হাসির রোল উঠল সেলেবমহলে৷ গতবারের অ্যাঙ্কর তারকাদের মধ্যে নেমে গিয়ে সেলফি তুলেছিলেন৷ এদিন হ্যারিসও নামলেন স্টেজের বাইরে৷ খোশগল্প করলেন এর ওর সঙ্গে৷ তাতেও থেকে থেকেই হাসির রোল উঠল রা ডলবি থিয়েটারে৷
সব মিলিয়ে অ্যাঙ্কারিংয়ে ফুলমার্কসই পাবেন হ্যারিস৷ প্রথমবার সঞ্চালনা করতে গিয়ে পূর্বসূরীর থেকেই পরামর্শ নিয়েছিলেন তিনি৷ তা যে ভালোই কাজে লেগেছে, তারই সাক্ষি থাকল ডলবি থিয়েটার৷