সাম্প্রতিক
সিটি-আনন্দ আলো সাহিত্য পুরস্কার প্রদান
সিটি-আনন্দ আলো সাহিত্য পুরস্কার প্রদান

সিটি-আনন্দ আলো সাহিত্য পুরস্কার প্রদান

সিটি-আনন্দ আলো সাহিত্য পুরস্কার প্রদান

সিটি-আনন্দ আলো সাহিত্য পুরস্কার প্রদান

সদ্য শেষ হওয়া বইমেলায় প্রকাশিত বইয়ের উপর ৮ম বারের মতো আনুষ্ঠানিকভাবে সিটি-আনন্দ আলো সাহিত্য পুরস্কার প্রদান করা হয়েছে।

আজ রবিবার চ্যানেল আই স্টুডিওতে কবি, সাহিত্যিক, লেখক, প্রকাশক আর বিশিষ্টজনের উপস্থিতিতে এই পুরস্কার প্রদান করা হয়। এ উপলক্ষ্যে চ্যানেল আই প্রাঙ্গণে এক মিলনমেলা বসেছিল। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক শামসুজ্জামান খান, চ্যানেল আই-এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক ফরিদুর রেজা সাগর এবং সিটিব্যাংক এনএ’র ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিটি বাংলাদেশ কান্ট্রি ট্রেজারার ও মাকের্টস-এর প্রধান সাজেদ উল ইসলাম।

এবার প্রবন্ধে সময় প্রকাশন থেকে প্রকাশিত শামসুজ্জামান খান-এর ‘রাষ্ট্র ধর্ম ও সংস্কৃতি’, উপন্যাসে অনন্যা থেকে প্রকাশিত ইমদাদুল হক মিলন-এর ‘সাড়ে তিন হাত ভূমি’, শিশুসাহিত্যে (যৌথভাবে) অনিন্দ্য প্রকাশ থেকে প্রকাশিত মোশতাক আহমেদ-এর ‘হিমালয়ে রিবিট’, সময় থেকে প্রকাশিত আলম তালুকদার-এর ‘হাওয়া আর রোদের ছড়া’, কবিতায় কুঁড়েঘর প্রকাশনী থেকে প্রকাশিত রেজাউদ্দিন স্টালিন এর ‘বায়োডাটা’ ‘সিটি-আনন্দ আলো সাহিত্য পুরস্কার ২০১৫’ পুরস্কার পেয়েছে।

অন্যদিকে ‘খ’ শাখায় (জীবনের প্রথম বই ক্যাটাগরিতে) অনিন্দ্য থেকে  প্রকাশিত মাহবুব আজীজ-এর ‘ঠিক সন্ধ্যার আগে’, অন্বেষা প্রকাশন থেকে প্রকাশিত কুসুম শিকদারের ‘নীল ক্যাফের কবি’, সময়কাল থেকে প্রকাশিত গালিব রহমান এর ‘যে সুতোয় বোনা যায় সমতল আবাস’ পুরস্কার পেয়েছে।

ক শাখায় প্রতিটি পুরস্কারের মূল্যমান ৩০ হাজার টাকা ও একটি ক্রেস্ট এবং খ শাখায় পুরস্কারের মূল্যমান ১০ হাজার টাকা ও একটি ক্রেস্ট।

উল্লেখ্য, কুসুম সিকদার কলকাতায় ছবির শুটিং-এ থাকায় অনুষ্ঠানে তার পক্ষে মা আয়েশা বেগম পুরস্কার গ্রহণ করেন।

সিটিব্যাংক এনএ’র সহায়তায় ২০০৮ সালে এই পুরস্কার প্রবর্তন করা হয়। এ যাবৎ যেসব গুণী কবি-সাহিত্যিক এই পুরস্কার পেয়েছেন তারা হলেন- মুহম্মদ জাফর ইকবাল, ইমদাদুল হক মিলন, আফজাল হোসেন, রাবেয়া খাতুন, মফিদুল হক, কামাল চৌধুরী, কাইজার চৌধুরী নাসরীন জাহান, অধ্যাপক আবদুল¬াহ আবু সায়ীদ, সৈয়দ শামসুল হক, আনিসুল হক, মুনতাসীর মামুন, নির্মলেন্দু গুণ, হুমায়ূন আহমেদ, আল মাহমুদ, ফজলুল আলম, কাইয়ুম চৌধুরী।