সাম্প্রতিক

ঝিনাইদহে হঠাৎ বৃষ্টিতে কাঁচা তরকারির মুল্যে আগুন, ক্ষেতেই নষ্ট হওয়ায় দাম এখন দ্বিগুন !


জাহিদুর রহমান তারিক,ঝিনাইদহঃ শিলা বৃষ্টিতে সবজি ক্ষেতেই নষ্ট হওয়ায় এক সপ্তাহের ব্যবধানে কাঁচা তরকারি দাম দ্বিগুন হারে বৃদ্ধি পেয়েছে। লক্ষ্যমাত্রার অধিক আবাদ হলেও দাম সাধারন ক্রেতাদের নাভিশ^াস হয়ে উঠছে। কোন উপায়ান্ত না পেয়ে প্রয়োজনে ভোক্তগন কিনতে বাধ্য হচ্ছে। কৃষি সম্পসারন অধিদপ্তর সূত্রে জানা গেছে, জেলার ৬টি উপজেলায় চলতি মৌসুমে ১০ হাজার ৬’শ ৯৩ হেক্টর জমিতে সবজির আবাদের লক্ষ্যমাত্র ধরা হয়। আর কৃষকরা লক্ষ্যমাত্র চেয়ে ১২ হেক্টর জমিতে বেশি সবজির আবাদ করেছেন। আর এরপরিমান সবজির ক্ষেত থেকে ১৭.৮৩ বা প্রায়১৮ মেট্টিক টন সবজির উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্র ধরা হয়েছে। সকল কাঁচাবাজরে শাকসবজির দাম বৃদ্ধিতে বিক্রি হচ্ছে। জেলা শহরের হাটবাজার গুলোতে ৪০ টাকার উচ্ছে ৮০ টাকা, ১০ টাকার গোল আলু ২০ টাকা, ১৫ টাকার লাউ (আকার ভেদে) ৫০ টাকা, ১০ টাকার পেঁপে ৩০ টাকা, ৪০ টাকার টমেটো ৮০ টাকা, ৪০ টাকার কাঁচা মরিচ ৮০ টাকা, ২০ টাকার পুইশাকের মেছড়ি ৫০ টাকা, ১০ টাকার পুইশাক ২০ টাকা, ২৫ টাকার বেগুন ৬০ টাকা, ১৫ টাকার মিষ্টি কুমড়া ৩৫ টাকাসহ প্রত্যেক কাঁচা তরকারি প্রতি কেজির দাম বৃদ্ধি পয়েছে। কালীগঞ্জ নতুন বাজারের ব্যবসায়ি নাজিম উদ্দিন বলেন, প্রতিদিন বেশি দামে কাঁচামাল কিনতে হচ্ছে এ কারণে বেশি দামে বিক্রি করতে হচ্ছে। উপজেলার নগরবাথান বাজারে সবজি বিক্রেতা আলতাফ, বাবলু হোসেনের নিকট জানতে চাইলে তারা বলেন, হঠাৎ মিলা বৃষ্টিতে জমিতেই শাক সবজি নষ্ট হয়ে গেছে। যে কারণে উৎপাদন কম। এক সপ্তাহের মধ্যেই বাজাওে দামের প্রভাব পড়েছে। চাষিদের নিকট থেকেও বেশি দামে শাকসবজি কিনতে হচ্ছে। এ ছাড়া পরিবহন খরবসহ আলাদা খরচ দিতে হয়। এরপর ২/৫ টাকা লাভ করতে বেশি দামে বিক্রি করতে হয়। পাইকপাড়া গ্রামের কাঁচা তরকারি কিনতে আসা সাখাওয়াত হোসেন জানান, বাজারে এত শাকসবজি তার পরও দাম কম নেই। প্রয়োজনে কিনতে বাধ্য হচ্ছি। ভান চালক আবদুল করিম বলেন, সারাদিন পরিশ্রম করে যে পরিমান আয় হচ্ছে, তার বেশির ভাগই চলে যাচ্ছে কাঁচাবাজর কিনতে। ঝিনাইদহ কৃষি বিভাগের অতিরিক্ত পরিচালক কৃপাংশু শেখর বিশ^াস বলেন, বর্তমানে সবজির ধরন কিছুটা কম। তাছাড়া শিলা বৃষ্টির কারণে ফুলফল ঝরে উৎপাদনও কম হচ্ছে। সবজি প্রতিদিনই ঢাকাসহ বিভিন্ন জায়গায় রপ্তানি হচ্ছে। যে কারণে দামও একটু বেশি।