সাম্প্রতিক

যৌতুক না দেয়ায় নববধূকে কুপিয়ে হত্যা

যৌতুক না দেয়ায় নববধূকে কুপিয়ে হত্যা

যৌতুক না দেয়ায় নববধূকে কুপিয়ে হত্যা

 যৌতুক না দেয়ায় নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে শিউলি আক্তার (১৮) নামে এক নববধূকে ধারালো বটি দিয়ে কুপিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে তার স্বামী শামিমের বিরুদ্ধে। শুক্রবার সকালে উপজেলার ভুলতা ইউনিয়নের পাঁচাইখা এলাকায় এ হত্যার ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় স্বামী শামিমকে আটক করেছে পুলিশ।

নিহত শিউলি আক্তার উপজেলার গোলাকান্দাইল পূর্বপাড়া এলাকার নসিমন চালক মনির হোসেনের মেয়ে।

নিহতের পরিবার এবং স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, গত আট দিন আগে উপজেলার পাঁচাইখা এলাকার মনির হোসেনের ছেলে শামিমের সঙ্গে শিউলি আক্তারের বিয়ে হয়। বিয়েতে ৭০ হাজার টাকা যৌতুক দেয়ার কথা থাকলেও ৩৫ হাজার টাকা পরিশোধ করে শিউলির পরিবার। এছাড়া যৌতুক হিসেবে আধা ভরি স্বর্ণও দেয়া হয়।

যৌতুকের বাকি টাকা না পেয়ে স্বামী শামিম শুক্রবার সকালে নিজ বাড়িতে প্রকাশ্যে শিউলিকে ধারালো বটি দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করেছে বলে দাবি করেছে নিহতের পরিবার। খবর পেয়ে রূপগঞ্জ থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে অভিযুক্ত স্বামী শামিমকে আটক করে।

নিহত শিউলির বাবা মনির হোসেন জানান, তিনি একজন নসিমন চালক। নসিমন চালিয়ে কোনো রকমে সংসার চালান। গত আট দিন আগে শামিমের সঙ্গে মেয়ের বিয়ে দেন। তবে যৌতুকের বাকি ৩৫ হাজার টাকার জন্য চাপ দিয়ে আসছিল জামাই শামিম। শুক্রবার ভোরেও ফোন করে যৌতুকের বাকি টাকা দাবি করে শামিম। যৌতুকের টাকার জন্যই শিউলিকে শামিম হত্যা করেছে। তিনি মেয়ের হত্যাকারী শামিমের সর্বোচ্চ শাস্তি দাবি করেছেন।

তবে অভিযুক্ত শামিমের পরিবারের দাবি, শামিম একজন মানসিক রোগী। হত্যাকাণ্ডের ঘটনাটি তারা মানতে পারছেন না।

এ বিষয়ে রূপগঞ্জ থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মনিরুজ্জামান মনির বলেন, হত্যার খবর পেয়ে তাৎক্ষণিক পুলিশ অভিযান চালিয়ে শামিমকে আটক করেছে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে সে হত্যার কথা স্বীকার করেছে।

ওসি আরও জানান, নিহত নববধূর মরদেহ উদ্ধার করে নারায়ণগঞ্জ সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় হত্যা মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল প্রকাশ করা হবে না