সাম্প্রতিক

মামীর সঙ্গে আপত্তিকর অবস্থায় ধরা খোকসার সেই ভাগনে-মামী

কুষ্টিয়ার খোকসায় মামীর সঙ্গে আপত্তিকর অবস্থায় দেখে ফেলায় মজিবুর রহমান (৭০) নামে এক ব্যক্তি খুনের ঘটনায় পুলিশ নিহতের নাতি নাঈম (২১) ও পুত্রবধূ সামিয়াকে (৩৪) আটক করেছে।

রোববার দিবাগত মধ্যরাতে খোকসা উপজেলার শমসপুর ইউনিয়নের সন্তোষপুর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। নিহত মজিবার রহমান ওই এলাকার মৃত গোসাই শেখের ছেলে।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে নাঈম ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেছেন। বিষয়টি নিশ্চিত করে খোকসা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এবিএম মেহেদী মাসুদ জানান, বেশ কিছুদিন ধরেই মজিবুর রহমানের বড় মেয়ের ছেলে নাঈমের সঙ্গে মেজ ছেলের স্ত্রী সামিয়ার পরকীয়ার সম্পর্ক চলছিল। তারা সম্পর্কে মামী-ভাগনে। রোববার রাতে ঢাকা থেকে এসে নাঈম নানা বাড়ি যায়। এ সময় মামা মাসুদের অনুপস্থিতিতে মামী সামিয়ার সঙ্গে আপত্তিকর কার্যকলাপে জড়ায় নাঈম।

এ সময় নানা মজিবুর রহমান তাদের দেখে ফেলেন। বিষয়টি প্রকাশ হয়ে যাওয়ার ভয়ে নাঈম তার নানাকে ঘর থেকে বারান্দায় বের করে এনে বুকে ধারালো ছুরি দিয়ে আঘাত করে পালিয়ে যায়। অন্যরা মজিবুর রহমানকে উদ্ধার করে খোকসা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

খবর পেয়ে পুলিশ রাতেই কুমারখালীর নিজবাড়ি থেকে নাঈমকে আটক করে। পরে তার স্বীকারোক্তিতে নিহতের বাড়ি থেকে সামিয়াকে আটক করে থানায় নেয়।

মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ হত্যাকাণ্ডের বিষয়ে মামলার প্রস্তুতি চলছে বলেও জানান ওসি।