সাম্প্রতিক

চুয়াডাঙ্গায় বাড়ছে পরিবেশদূষণ

চুয়াডাঙ্গায় যানবাহনের কালো ধোঁয়া, হাইড্রোলিক হর্ন, যখন-তখন মাইকের ব্যবহারে দূষণের মাত্রা বেড়েই চলেছে। ফলে দূষণজনিত অসুখবিসুখেও আক্রান্ত হচ্ছে মানুষ। তবু দূষণ বন্ধে কোনো আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে না।

জেলার সদর, আলমডাঙ্গা দামুড়হুদা ও জীবননগরে চলাচল করা যানবাহনের শতকরা ৬০ ভাগই কালো ধোঁয়া ছড়িয়ে থাকে। এই ৬০ ভাগের মধ্যে আবার ৪০ ভাগই অবৈধ শ্যালো ইঞ্জিনচালিত যান আলম সাধু ও করিমন। পরিবেশবিদদের মতে, ইঞ্জিনে ত্রুটি থাকলে যানবাহন চলার সময় কালো ধোঁয়া ছড়ায়, যা পরিবেশদূষণের জন্য দায়ী। এর ওপর আছে বিভিন্ন যানবাহনের হাইড্রোলিক হর্ন, যদিও শব্দদূষণ প্রতিরোধে এ হর্ন বাজানো নিষিদ্ধ করা হয়েছে। কিন্তু কে শোনে কার কথা? অন্যদিকে প্রতিদিনই বিভিন্ন স্থানে উচ্চ শব্দে বাজানো হচ্ছে মাইক।

দামুড়হুদার উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা আবু হেনা মোহাম্মদ জামাল শুভ বলেন, কালো ধোঁয়ার সঙ্গে বিভিন্ন ক্ষতিকর উপাদান বাতাসে ছড়িয়ে পড়ে। কালো ধোঁয়ায় থাকা বস্তুকণা ও সালফার ডাই-অক্সাইডের প্রভাবে ফুসফুস আক্রান্ত হয়, কিডনি জটিলতা দেখা দেয় এবং হৃদরোগ হয়। নাইট্রোজেন ডাই-অক্সাইড ও সিসার কারণে শ্বাসযন্ত্রের প্রদাহ, নিউমোনিয়া, ব্রংকাইটিস ও শিশুদের বুদ্ধিবৃত্তি ব্যাহত হয়।

x

Check Also

সহযোগিতা ছাড়া পৃথিবীতে কোন মহৎ ও বৃহৎ কাজ করা সম্ভব না- আলমডাঙ্গার ইউএনও

মুক্তিযোদ্ধা, সাংবাদিক ও স্থানীয় সন্মানীত ব্যক্তিবর্গের সাথে মতবিনিময় সভা করলেন আলমডাঙ্গা উপজেলার সদ্য যোগদানকারি নির্বাহি ...