সাম্প্রতিক

আলমডাঙ্গার নওদা দুর্গাপুর মধ্যমাঠের খালে কালভার্ট নির্মাণে ব্যাপক অনিয়ম

ব্যাপক অনিয়মের অভিযোগ তুলে গ্রামবাসি আলমডাঙ্গার নওদা দুর্গাপুর মধ্যমাঠের খালে কালভার্ট নির্মাণ কাজ বন্ধ করে দিয়েছে।

          সরেজমিন ঘুরে জানা গেছে, আলমডাঙ্গা উপজেলার কুমারী ইউনিয়নের নওদা দূর্গাপুর গ্রামের মধ্যমাঠের খালের উপর ত্রাণ ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা মন্ত্রণালয়ের অর্থায়নে কালভার্ট নির্মাণ করা হচ্ছে। প্রায় ১৬ লাখ টাকা ব্যয়ে নির্মিতব্য ওই কালভার্টের দায়িত্বপ্রাপ্ত ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান হচ্ছে দর্শনার এম আর এন্টারপ্রাইজ। ঈদের আগে রমজান মাসে কালভার্টটির নির্মাণ কাজ শুরু করা হয়। মাত্র ১টি গাইড ওয়াল নির্মাণ শেষ হয়েছে।

এদিকে, কালভার্ট নির্মাণ কাজে ব্যাপক অনিয়মের অভিযোগ তুলে গত ১১ জুন গ্রামবাসি নির্মাণকাজ বন্ধ করে দেয়। গ্রামবাসির অভিযোগ – কালভাটর্টি সেখানে ১৪ ফিট হওয়ার কথা সেখানে করা হচ্ছে সাড়ে ১৩ ফিট। ১২ মিলি রডের পরিবর্তে দেওয়া হচ্ছে ১০ মিলি রড। গাইড ওয়ালে ৬ ইঞ্চি পর পর রড ব্যবহারের নির্দেশনা থাকলেও দেওয়া হচ্ছে ৮/৯ ইঞ্চি পর পর, যেখানে ১০ ইঞ্চি পর পর রড দেওয়ার কথা, সেখানে প্রায় শতকরা ৪০ ভাগ রড দেওয়া হয়েছে ১৩ ইঞ্চি পর পর। ধুলা মিশ্রিত খুব নিম্নমানের পাথর ব্যবহার ও উন্নতমানের ঢালাই বালির পরিবর্তে ধুলো মিশ্রিত নিম্নমানের ফিলিং বালু ব্যবহার করা হচ্ছে। তাছাড়া পাথরঃ সিমেন্টের পরিমান ৩:১ এর পরিবর্তে ৫:১ ব্যবহার করা হয়েছে। 

ওই গ্রামের ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক এনামুল হক বলেন, ঈদের আগের দিনের দেওয়া ঢালাই ৪ দিন পরও  ভেঙ্গে পড়ছে। তাহলে বোঝেন কত নিম্নমানের কাজ হয়েছে।

ওই গ্রামের জিয়ারুল হক বলেন, কাজের ভালমন্দ দেখতে আলমডাঙ্গার ত্রাণ অফিসের কেউ যান না, কোন ইঞ্জিনিয়ারও দেখভাল করেন না। ঠিকাদারের মিস্ত্রি যা ইচ্ছে হয় করে যায়। 

গ্রামবাসির এন্তার অভিযোগের সত্যতা সম্পর্কে সংশ্লিষ্ট ঠিকাদার তোফাজ্জেল হোসে তপু বলেন, তার ঠিকাদারি কাজের পূর্ব অভিজ্ঞতা নেই। সে কারণে অন্যের পরামর্শ নিয়ে কাজ করতে গিয়েই এমন বিপত্তি হয়েছে।   

x

Check Also

গাংনীতে জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ-’১৯ অনুষ্ঠিত

গাংনী প্রতিনিধিঃ ‘মাছ চাষে গড়বো দেশ,বঙ্গবন্ধুর বাংলাদেশ’এই প্রতিপাদ্য বিষয় নিয়ে,বর্ণাঢ্য সড়ক র‌্যালী, উদ্বোধনী অনুষ্ঠান,আলোচনা সভা ...