সাম্প্রতিক

গাংনীতে আশ্রয়ণ প্রকল্পের ঘর নির্মানে অনিয়মের অভিযোগে জড়িতদের প্রত্যাহার

গাংনী প্রতিনিধি: নিজের জমিতে গৃহ নির্মাণ আশ্রয়ণ-২, প্রকল্পের আওতায় মেহেরপুরের গাংনীতে ঘর নির্মানে অনিয়মের অভিযোগ উঠায় মিস্ত্রি সহ এ কাজের সাথে জড়িতদের প্রত্যাহার করা হয়েছে।

বুধবার সকালে গাংনী উপজেলা নির্বাহী অফিসার বিষ্ণুপদ পাল স্থানীয় ও ভুক্তভুগীদের অভিযোগের ভিত্তিতে তাদের প্রত্যাহার করা হয়।

ভুক্তভুগি বাড়ির মালিক হালিমা খাতুন জানান,রাজমিস্ত্রি পলাশ ঘর নির্মানের জন্য রড,মাটি ভরাট,লেবার খরচ দাবি করে। ইতো মধ্যে কিছু টাকাও দেয়া হয়। এছাড়া আমার প্রতিবন্ধী মেয়েকে দিয়ে ইট বহনের কাজও করানো হয়। সরকার বিনামূল্যে ঘর দিলেও আমাদের টাকা ও শ্রম দিতে হচ্ছে। তাছাড়া কাজও হচ্ছে নিম্নমানের।

গাংনী পৌর মেয়র আশরাফুল ইসলাম জানান,অনিয়মের খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে সত্যতা পাওয়া যায়। এছাড়া নিম্নামানের কাজ হচ্ছে বলেও তিনি দাবি করেন।

গাংনী উপজেলা নির্বাহী অফিসার বিষ্ণুপদ পাল বলেন,অনিয়মের খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে মিস্ত্রি কর্তৃক টাকা চাওয়া ও ইটবালি বহনের অভিযোগ পাওয়া যায়। এ ঘটনায় মিস্ত্রি সহ এ কাজের সাথে জড়িতদের প্রত্যাহার করা হয়েছে। এখন নতুন মিস্ত্রি দিয়ে কাজ করা হবে।

এছাড়া কাজ তদারকি করার জন্য প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তাদের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। এসময় তিনি ভালো মানের কাজ করার আশ্বাস দেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার বিষ্ণুপদ পাল।
গাংনী উপজেলা বিভিন্ন গ্রামে ৪১ টি ঘর নির্মানর করা হবে। প্রতিটা ঘর নির্মান ব্যায় হবে ১ লক্ষ টাকা।