সাম্প্রতিক

ঝিনাইদহ কালীগঞ্জ মহাসড়কের দু,পাশের বিভিন্ন স্থানে চলছে জমজমাট বালির ব্যবসা

জাহিদুর রহমান তারিক,ঝিনাইদহঃ প্রশাসনকে তোয়াক্কা না করে ঝিনাইদহ কালীগঞ্জ মহাসড়কের দু,পাশের বিভিন্ন স্থানে চলছে জমজমাট বালির ব্যবসা। এতে নষ্ট হচ্ছে পরিবেশ যাতায়াতের সমস্যা। সেই সাথে দুর্ভোগ বেড়েছে সড়কে চলাচলকারী সাধারণ মানুষের যানবাহনের। ব্যবসায়ীদের যত্রতত্র বালি রাখার কারণে প্রায় ঘটছে দুর্ঘটনা। আবার সড়কের পাশে বালি ভর্তি ট্রাক রেখে সড়ক আপকিয়ে যাজটের সৃষ্টি করছে। ঝিনাইদহ শহরের পাগলাকানায়, হামদহ,মুজিব চত্তর থেকে কোর্টের রাস্তা ও কালীগঞ্জ শ্রীলক্ষী মিনেমা হলের পাশে, শাহি হোটেলের সামনে, টার্মিনালের সামনে, এ ছাড়া খয়েরতলা থেকে দুলালমুন্দিয়া পর্যন্ত মগা সড়কের দু,পাশে অবাধে বালি বিক্রি করছে। এত করে একদিকে পরিশে নষ্ট হচ্ছে ও যাহবাহনের চলাচল করতে মারাতœক সমস্যা হচ্ছে। কালীগঞ্জ প্রমাসনের পক্ষ থেকে অনেকবার মাইকিং করা হয়েছে সড়কের পাশে বালির ট্রাক ও খুচরা বালি বিক্রি না করার জন্য। কিন্তু প্রশাসনের এসব কথা তোয়াক্কা করছে না। এছাড়াও শহরের নানা স্থানে বালি ব্যবসা করছেন অনেকে। অনেকে আবার বাড়ি, দোকান নির্মাণ করার জন্য সড়কের পাশে বালি রেখেছেন। স্থানীয়রা অভিযোগ করেন, সড়কের পাশে বালি রাখার কারণে তাদের চলাচল করতে ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে। বাতাস উঠলেই বালি উড়ে তাদের চোখে মুখে পড়ে। রাস্তার পাশে ট্রাক, পিকআপ ভ্যান রেছে বালি আনলোড করার সময় অনেক সময় যানজট লেগে যায়।স্থানীয়রা আরও অভিযোগ করেন, বালি ঢেকে রাখার নিয়ম থাকলেও তা কেউ মানছেন না। যে কারণে ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে তাদের। এ ব্যাপারে কালীগঞ্জ পৌরসভার মেয়র আশরাফুল আলম বলেন, রাস্তার পাশের বালি অপসারণের জন্য সড়ক ও জনপথকে জানানো হয়েছে। তারা কার্যকর ব্যবস্থা নেওয়ার কথা বললেও আজও তা বাস্তবায়ন হয়নি। ভোগান্তি থেকে সাধারণ মানুষকে রেহাই দিয়ে কালীগঞ্জ পৌরসভা সকল প্রকার সহযোগিতা করবে।