সাম্প্রতিক

সিলেটে ধর্ষণ মামলার আসামিকে পিটিয়ে হত্যা

সিলেট নগরীতে গণপিটুনিতে এক যুবক নিহত হয়েছে। বুধবার রাত ১১টার দিকে নগরীর বন কলাপাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। নিহত দুদু মিয়া (৩৫) স্বেচ্ছাসেবক লীগের কর্মী বলে স্থানীয়রা জানিয়েছেন। চাঞ্চল্যকর একটি ধর্ষণ মামলার আসামি ছিল দুদু মিয়া।
জানা যায়, বুধবার রাতে এলাকায় ডাকাত পড়েছে বলে বন কলাপাড়া এলাকার শাহ রুমি মসজিদের মাইকে ঘোষণা দেয়া হয়। এই ঘোষণা শুনে এলাকাবাসী জড়ো হয়ে বন কলাপাগড়ার গোলাপ পয়েন্টে দুদুকে পিটিয়ে হত্যা করেন। দুদু এলাকায় ডাকাতির প্রস্তুতি নিচ্ছিলো বলে অভিযোগ এলাকাবাসীর।

ঘটনাস্থলে গিয়ে দেখা গেছে, এলাকার সড়কের মধ্যে দুদুর লাশ পড়ে আছে। তার মাথায় আঘাত করা হয়েছে। লাশের হাতে একটি দা রয়েছে।

গণপিটুনিকে নিহত দুদু মিয়া সিলেটের একটি চাঞ্চল্যকর ধর্ষণ মামলার আসামি ছিল। এছাড়া সে বনকলাপাড়া এলাকার চিহ্নিত সন্ত্রাসী বলে জানিয়েছেন এলাকাবাসী। গত ১৪ এপ্রিল বনকলাপাড়া নূরানী আবাসিক এলাকার একটি কলোনিতে ভাগ্নির বাসায় বেড়াতে আসা এক তরুণীকে (২৬) গণধর্ষণ করে দুদু মিয়া ও তার সঙ্গীরা। এ ঘটনায় দায়েরকৃত মামলায় দুদু মিয়াসহ ৩ ধর্ষককে গ্রেফতারও করে পুলিশ। সম্প্রতি সে ছাড়া পেয়ে আবারো এলাকায় সন্ত্রাসী কর্মকান্ড শুরু করে। গত কয়েকদিন আগে সে স্থানীয় মসজিদের মুয়াজ্জিনকেও মারতে উদ্যত হয় বলে জানান এলাকাবাসী।

দুদু নিজেকে স্বেচ্ছাসেবক লীগ কর্মী ও স্থানীয় কাউন্সিলরের লোক হিসেবে এলাকায় পরিচয় দিতো বলে ঘটনাস্থলে উপস্থিত একাধিক ব্যক্তি জানিয়েছেন।

এ ব্যাপারে সিলেট মহানগর স্বেচ্ছাসেবকল লীগের সভাপতি ও স্থানীয় কাউন্সিলর আফতাব আহমদ সংবাদ মাধ্যমকে জানান, মসজিদে মাইকিং করে গণপিটুনিতে একজনকে মারা হয়েছে। কি কারণে মারা হয়েছে তা খোঁজ নিয়ে দেখছি। তবে দুদুর কোনো রাজনৈতিক পরিচয় নেই বলে জানান আফতাব। এদিকে, গণপিটুনিতে নিহত হওয়ার খবর পেয়ে এয়ারপোর্ট থানার ওসি শাখাওয়াত হোসেনের নেতৃত্বে পুলিশ ঘটনাস্থলে যায়।

ওসি জানান, লাশের সুরতহাল রিপোর্ট করা হচ্ছে। ঘটনাস্থলের পাশ থেকে তার ব্যবহৃত একটি মোটর সাইকেল জব্দ করা হয়েছে। এসময় তার সাথে থাকা কয়েকজন পালিয়ে যায়। নিহত দুদু মিয়ার হাতে দেশীয় একটি দা পাওয়া গেছে বলে জানান তিনি।
সিলেট মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত উপ কমিশনার (গণমাধ্যম) জেদান আল মুসা বলেন, বন কলাপাড়া থেকে দুদু নামে একজনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। তার শরীরে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। 

এলাকাবাসী জানিয়েছে, ডাকাতির প্রস্তুতিকালে গণপিটুনিতে সে মারা গেছে। দুদুর বিরুদ্ধে ধর্ষণসহ বিভিন্ন অভিযোগে ৪/৫টি মামলা রয়েছে।