সাম্প্রতিক
রংপুরে মেয়েকে হত্যা করলেন ‘বাবা’

রংপুরে মেয়েকে হত্যা করলেন ‘বাবা’

রংপুরে মেয়েকে হত্যা করলেন ‘বাবা’

রংপুরে মেয়েকে হত্যা করলেন ‘বাবা’

রোববার সকালে রংপুর নগরীর তাজহাট এলাকা থেকে একটি কলাবাগানে আরিফা নামের ওই শিশুর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

মৃত আরিফা নগরীর কিশামত বিশু মানজাই এলাকার আলাল হোসেনের মেয়ে। ঘটনার পর থেকে আলাল পলাতক রয়েছেন।

স্বজনের বরাত দিয়ে কোতোয়ালি থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আজিজুল হক বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে জানান, আলাল তার স্ত্রী সেবা খাতুনকে নিয়ে চট্টগ্রামে থাকেন। সেখানে রিকসা চালান তিনি। তাদের একমাত্র মেয়ে আরিফা নগরীর ডিমলা কানুনগোটোলায় নানি আফরোজা বেগমের কাছে থাকত।

আজিজুল হক জানান, ঈদ করার জন্য আলাল ও সেবা বাড়ি আসেন। ঈদের পরদিন স্ত্রীকে নিয়ে শ্বশুরবাড়ি যান আলাল।  বৃহস্পতিবার দুপুরে স্ত্রীকে রেখে মেয়ে আরিফাকে নিয়ে নিজ বাড়ি চলে যান আলাল।

“রোববার সকালে তার লাশ পাওয়া যায়। মেয়েটির গলায় জখমের চিহ্ন রয়েছে। শিশুটিকে গলা টিপে হত্যা করেছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে।”

ময়নাতদন্তের জন্য লাশ রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসাপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে বলে জানান পরিদর্শক আজিজুল।

আরিফার মা সেবা বেগম বলেন, “এক বছর ধরে চট্টগ্রামে স্বামীর সঙ্গে থাকি। সেখানে আমার স্বামীর সঙ্গে অন্য এক মেয়ের প্রেমের সম্পর্ক আছে। প্রায়ই আমাকে তালাক দিতে চায়। এনিয়ে অনেকবার ঝগড়া হয়েছে। আমাকে মারপিটও করেছে।”

বৃহস্পতিবার মেয়েকে নিয়ে যাওয়ার পর অনেকবার মোবাইলে মেয়েকে ফেরত চাইলেও দেননি বলে অভিযোগ করেন সেবা খাতুন।

তার স্বামীই তাদের একমাত্র সন্তানকে হত্যা করেছে বলে দাবি করেন সেবা।

নিহতের নানি আফরোজা বেগম বাদী হয়ে আলাল হোসেনকে আসামি করে কোতোয়ালি থানায় হত্যা মামলা করেছেন বলে জানান পরিদর্শ আজিজুল।