সাম্প্রতিক

পদ্মা নদীর তীর রক্ষা ও ড্রেজিং প্রকল্পের উদ্বোধন করলেন, ফরিদপুর-৪ আসনের এমপি

ফরিদপুরের চরভদ্রাসনে বৃহস্পতিবার সন্ধা ৭টার দিকে নদী ভাঙ্গনকবলিত উপজেলাবাসীর দীর্ঘ প্রতিক্ষীত এমপি ডাঙ্গী পদ্মা নদীর ডানতীর রক্ষা ও ড্রেজিং প্রকল্পের শুভ উদ্বোধন করেছেন ফরিদপুর-৪ আসনের এমপি মুজিবুর রহমান চৌধুরী (নিক্সন)। 

পরে নদী পাড়ে আয়োজিত সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে তিনি যোগদান করেন। সভায় নিক্সন চৌধুরী বলেন, নদী পাড়ের মানুষের বাড়ি ঘর ও উপজেলা পরিষদ রক্ষায় প্রায় ২৯৩ কোটি টাকার স্থায়ী বাঁধ নির্মাণের প্রকল্পটি অনুমোদনের চেষ্টা চালানো হয়। সাবেক পানিসম্পদ মন্ত্রী আনোয়ার হোসেন মঞ্জুর সার্বিক সহযোগিতায় ২০১৮ সালের ৭ আগস্ট একনেক সভায় স্থায়ী বাঁধের প্রকল্পটি পাশ করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি আরও বলেন, ভাঙ্গা-সদরপুর-চরভদ্রাসনের মানুষের অধিকার রক্ষা ও উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখা আমার দায়িত্ব। ২০১৪ সালে নির্বাচিত হওয়ার পর এই উপজেলায় ফেরি চালুর লক্ষ্যে দুটি ফেরি, ইঞ্জিন ও পল্টন আনা হয়, যা একটি কুচক্রী মহলের অপতৎপরতায় জটিলতার সৃষ্টি হয়েছে। জনগণ তাদের প্রত্যাখ্যান করেছে। শিগগিরই চরভদ্রাসন উপজেলার গোপালপুর টু চর মইনুট ঘাটে ফেরি চালু করা হবে বলে উপস্থিত জনগণকে আশ্বস্ত করেন সাংসদ। 

সভার সভাপতি পাউবোর নির্বাহী প্রকৌশলী সুলতান মাহামুদ বলেন, প্রকল্পটি অনুমোদনের পর সংশ্লিষ্ট দফতর স্থায়ী বাঁধ নির্মাণের লক্ষ্যে নানা প্রক্রিয়া সম্পন্ন করে জিওব্যাগ ডাম্পিং ও ব্লক তৈরির কাজ শুরু করেছে। এছাড়া উপজেলার বালিয়াডাঙ্গী গ্রাম বেশি ঝুঁকিপূর্ণ হলে সকলের সহযোগিতায় তা এই প্রকল্পের আওতায় সংজোজন করা হবে। 

নদীর পাড়ে আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন- অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) রোকসানা রহমান, উপজেলা নির্বাহী অফিসার পূরবী গোলদার, উপজেলা চেয়ারম্যান মো. মোশাররফ হোসেন মুসা, সদরপুর উপজেলা চেয়ারম্যান মো. শফিকুর রহমান কাজি, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. আজিজুল হক মাস্টার, মুক্তিযোদ্ধা সাবেক কমান্ডার আবুল কালাম মাস্টার, সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মো. আনোয়ার আলী মোল্লা প্রমুখ।