সাম্প্রতিক

পাগলা কুকুরের কামড়ে আহত ১২

রাত সাড়ে ৮টা। রান্না ঘরে চলছে রাতের খাবার তৈরির প্রস্তুতি। গৃহিনীরা রান্না নিয়ে যে যার যার মতো ব্যস্ত। ওই সময় মায়ের পাশে খেলা করছিল হাটহাজারী উপজেলার মেখল ইউনিয়নের সানাউল্লাহ খন্দকার বাড়ি প্রকাশ ছিদ্দিক সওদাগর বাড়ির মো. বেলালের কন্যা নাবিহা (৫)।

হঠাৎ একটি পাগলা কুকুর রান্নাঘরে ঢুকে নাবিহার বাম হাতে কামড় দেয়। নাবিহা ও অন্যান্য নারীদের চিৎকার শুনে পাশের ঘর থেকে চাচাতো ভাই আমজাদ হোসেন রিপন (১৫) তাকে রক্ষা করতে লাঠি নিয়ে রান্নাঘরে এগিয়ে আসে।

এ সময় লাঠি হাতে দেখে কুকুরটি রিপনকে ধাওয়া করে। কুকুরের ধাওয়া খেয়ে কিছু দূর যাওয়ার পর রিপন হোঁচট খেয়ে মাটিতে পড়ে গেলে কুকুরটি তার ডান পায়ে কামড় দেয়।

এভাবে পাগলা কুকুর চট্টগ্রামের হাটহাজারী পৌরসভা ও উপজেলার বিভিন্ন স্থানে নারী ও শিশুসহ ১০-১২ জনকে কামড়িয়ে গুরুতর আহত করেছে।

শনিবার দিনে ও দিবাগত রাতে পৌর এলাকার পূর্ব দেওয়ান নগর, আজিম পাড়া, মেখল এবং গড়দুয়ারা ইউনিয়নের বিভিন্ন স্থানে এ ঘটনা ঘটে।

কুকুরের কামড়ে গুরুতর অন্যান্য আহতরা হলেন পৌরসভার পূর্ব দেওয়ান নগর এলাকার নারগিস (২৫) ও তার কন্যা রাজিয়া (৮), আজিমপাড়া এলাকার রহিমা বেগম (৪০), মেখল ইউনিয়নের কাউছার (১১), ফাহিমা (১০) এবং গড়দুয়ারা ইউনিয়নের তাসফিক উদ্দিন (২)।

আহতদের মধ্যে কয়েকজনকে প্রথমে স্থানীয় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। রাত ৮টার পর পাগলা কুকুরের কামড়ে আক্রান্ত ৫ জন নারী ও শিশু এসেছেন। অন্যান্যরা এসেছিলেন দিনের বেলায়।

হাটহাজারী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগে কর্মরত চিকিৎসক ডা. রাশেদুল ইসলাম জানান, গুরুতর আহতদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়ার পর উন্নত চিকিৎসার জন্য চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

x

Check Also

চট্টগ্রামে গার্মেন্টস কর্মীকে ধর্ষণ মামলার আসামির গুলিবিদ্ধ লাশ উদ্ধার

গার্মেন্টস কর্মীকে ধর্ষণের ঘটনায় দায়ের হওয়া মামলার আসামি আবদুন নুরের (২৫) গুলিবিদ্ধ লাশ উদ্ধার করেছে ...