সাম্প্রতিক

সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজে মাটিচাপা ১৫ বস্তা ওষুধ!

সাতক্ষীরা সরকারি মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ক্যাম্পাসের মাটিতে পুঁতে রাখা বিপুল পরিমাণ ওষুধ ও চিকিৎসা সামগ্রী উদ্ধার করা হয়েছে।

শনিবার ভোরের বৃষ্টিতে ভিজে উঠে বস্তাগুলি বেরিয়ে পড়ে। এরপর তা উদ্ধার করে পুলিশ। দুপুরে ওই ওষুধ ফের মাটি চাপা দেয়ার জন্য স্টোর কিপারের সঙ্গে শ্রমিকদের দর কষাকষির সময় বিষয়টি জানাজানি হয়।

এসব ওষুধ সরকারের দেয়া। এর পরিমাণ কমপক্ষে ১৫ বস্তা বলে দাবি হাসপাতাল কর্মচারীদের।

সাতক্ষীরা সদর থানার ওসি মোস্তাফিজুর রহমান জানান, ওষুধ ভর্তি বস্তাগুলি ড্রেনের মধ্যে পড়ে থেকে পঁচে ওঠে। এর থেকে কিছু স্যাম্পল আমরা জব্দ করেছি।

তিনি বলেন, কে বা কারা এই ওষুধ লোপাটের সঙ্গে জড়িত তা তদন্ত না করে বলা সম্ভব নয়।

এদিকে সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. মো. শাহজাহান আলি বলেন, আমি অফিস থেকে চলে আসার পর দুপুরে খবরটি জানতে পেরেছি।

তিনি বলেন, ক্যান্টিনের পেছনে সেপটিক ট্যাংকের কাছে বহু টাকা মূল্যের এ ওষুধ মাটি চাপা দেয়া ছিল। বৃষ্টির পানিতে ভিজে তা বেরিয়ে পড়ে। এর মধ্যে বিভিন্ন ধরনের ওষুধ রয়েছে যার মেয়াদ ২০২২ সাল পর্যন্ত। সঙ্গে গজ ব্যান্ডেজ ও ক্যানোলা রয়েছে বলে জানান তিনি।

ডা. শাহজাহান আরও বলেন, এসব ওষুধ হাসপাতালের স্টোর থেকে খোয়া যায়নি। এমনকি এসব ওষুধ ও চিকিৎসা সামগ্রী তার সময়কালে ক্রয় করা হয়নি।

হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে আসা রোগীরা জানান, তারা তাদের প্রয়োজনীয় ওষুধ না পেয়ে বাজার থেকে কিনে আনতে বাধ্য হন। অথচ সরকারের দেয়া কোটি কোটি টাকার ওষুধ যা বিনামূল্যে দেয়ার কথা তা চুরি করছে অসাধু ব্যক্তিরা। তারা ওষুধ লোপাটের সঙ্গে জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেন।