সাম্প্রতিক

গরীবের ডাক্তার এজাজুল ইসলাম সকলের কাছে প্রশংসিত

ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিউক্লিয়ার মেডিসিন বিভাগের প্রধান হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার প্রাপ্ত অভিনেতা ডা. এজাজ। সরকারী দায়িত্ব পালন করে গাজীপুরে নিজের চেম্বারে সেখানকার মানুষদের চিকিৎসা দিয়ে থাকেন এজাজ। অসহায় গরীব মানুষদের চিকিৎসা করতে খুবই অল্প পরিমাণ টাকা ভিজিট নিয়ে থাকেন তিনি। তাই সবাই তাকে ‘গরীবের ডাক্তার’ নামে ডাকেন।

অন্যদিকে অভিনয়ে তিনি এতোটাই জনপ্রিয়, যে কোন নাটক সিনেমায় তার উপস্থিতি মানেই বাড়তি বিনোদন। চিকিসক পেশা ঠিক রেখেই নিয়মিত অভিনয় করে চলেছেন এই অভিনেতা। নিজের অভিনয় দিয়ে মানুষের মন জয় করেছেন অনেকে আগেই। আর চিকিৎসক হিসেবেও অসংখ্য মানুষের হৃদয়ে রয়ে গেছেন প্রিয় মানুষ হিসেবে।

সম্প্রতি গরিবের এই ডাক্তার আবারও এসেছেন আলোচনায়। সোশ্যাল মিডিয়াতে তাকে নিয়ে প্রশংসা করেছেন অনেকেই। সোমবার এভারগ্রীণ বাংলাদেশ নামে একটি ফেসবুক পেইজে আব্দুল্লাহিল কাফী নামে এক ব্যক্তি লিখেছেন, ‘আমাদের দেশে এখনো ভালো এবং মানবিকতা সম্পন্ন ডাক্তার আছে। তিনি হলেন বিশিষ্ট অভিনেতা ডাক্তার এজাজুজ ইসলাম এই ধরণের ডাক্তার এর কাছে গেলেই রোগ ৫০% ভালো হয়ে যায়। রেস্পেক্ট স্যার’।

পোস্টেটিতে দেখা যাচ্ছে, গরীব মানুষদের চিকিৎসা করার জন্য মাত্র ৩০০টাকা নিয়ে থাকেন ডা. এজাজ। রুগী পুরনো হলে সেই ফি হয় ২০০টাকা।

অনেকেই শেয়ার করেছেন এই পোস্টটি। মঙ্গলবার দুপুরে বিষয়টি নিয়ে কথা হয় ডা. এজাজের সঙ্গে। তিনি বলেছেন, ‘গাজীপুরে আমার ব্যক্তিগত চেম্বারে প্রতিদিন সন্ধ্যায় রুগী দেখি। অনেকেই আসেন চিকিৎসা নিতে। আমি আমার সাধ্য মতো চেষ্টা করি তাদের সুস্থ করে তোলার। কোন রুগী হয় তো নতুন করে আবারও সামনে এনেছে বিষয়টি । মাঝে মধ্যে রুগীরা আবেগে আপ্লুতো হয়ে এগুলো পোস্ট দিয়ে বসে। এর মধ্যে গত রাত্রে টাঙ্গাইল থেকে একজন এসেছিল। ছবি তুলে নিয়ে গেছে মনে হয়।’

অভিনয়ের বর্তমান ব্যস্ততা নিয়ে জানতে চাইলে ডা. এজাজ বলেন, ‘আসছে ঈদের জন্য মাসুদ সেজানের পরিচালনায় দুইটা ৭ পর্বে নাটকে অভিনয় করছি। এগুলো হলো-‘ধামাকা অফার’ ও
‘ভাড়াটিয়া’। এছাড়া অনিমেষ আইচের পরিচালনায় একটা টেলিফিল্মে অভিনয় করবো। এখনো নাম ঠিক হয়নি টেলিফিল্মটির।’

বর্তমানে ডা. এজাজ অভিনীত চারটি ধারবাহিক নাটক প্রচার হচ্ছে বিভিন্ন টিভি চ্যানেলে। নাটকগুলো হলো অনিমেষ আইচ পরিচালিত ‘দ্য গুড দ্য ব্যাড অ্যাণ্ড দ্য আগলি’, মাসুদ সেজান পরিচালিত ‘খেলোয়ার’, কায়সার আহমেদের ‘মহা ঝামেলা’ ও সঞ্জিত সরকার পরিচালিত ‘চিটিং মাস্টার’।

জনপ্রিয় এই অভিনেতা জানালেন তার অভিনীত একটি সিনেমাও আছে মুক্তির অপেক্ষায়। সিনেমাটির নাম ‘মামা মারে ছক্কা’। এটি পরিচালনা করেছেন নাইমুল করিম। এরই মধ্যে ছবিটির শুটিং শেষ করেছেন এজাজ।

x

Check Also

বর্ষাকালে ডেঙ্গুর প্রকোপের বৃদ্ধি পায় এজন্য সতর্ক থাকার পরামর্শ

চলছে ঘোর বর্ষা। তাই স্বাভাবিকভাবেই অপ্রত্যাশিত মরণব্যাধি ডেঙ্গুর প্রকোপ নিয়ে শঙ্কা ভর করেছে শহর-গ্রামে। এরই ...