সাম্প্রতিক
‘বন্দে মাতরম’ নিয়ে যা বললেন নকভি

‘বন্দে মাতরম’ নিয়ে যা বললেন নকভি

‘বন্দে মাতরম’ নিয়ে যা বললেন নকভি

ভারতের কেন্দ্রীয় সংসদবিষয়ক প্রতিমন্ত্রী মুখতার আব্বাস নকভি বলেছেন, ‘বন্দে মাতরম’ গানটি গাওয়া প্রত্যেকের নিজস্ব পছন্দের ব্যাপার। গানটি গাইতে না চাইলেই কেউ দেশবিরোধী বা জাতীয়তাবিরোধী হয়ে যায় না।

আজ রোববার ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসের এক খবরে জানা যায়, মুম্বাইতে এক অনুষ্ঠানে নকভি এ কথা বলেন। তিনি আরও বলেন, চাইলে কেউ ‘বন্দে মাতরম’ গানটি গাইতে পারে। না চাইলে গাইতে না-ও পারে। না গাইলেই কেউ দেশবিরোধী হয়ে যায় না।

নকভি আরও বলেন, কেউ যদি উদ্দেশ্যমূলকভাবে ‘বন্দে মাতরম’ গাইতে না চায়, তাহলে তা বাজে ব্যাপার। এটি জাতীয় স্বার্থবিরোধী হবে।

মহারাষ্ট্রের বিধানসভায় গতকাল শনিবার ক্ষমতাসীন বিজেপির বিধায়কেরা রাজ্যের স্কুল ও কলেজগুলোতে ‘বন্দে মাতরম’ গানটি গাওয়া বাধ্যতামূলক করার দাবি জানান। সমাজবাদী দলের বিধায়ক আবু অসীম আজমি এর বিরোধিতা করেন। এ কারণে আজমি বিধানসভায় তোপের মুখে পড়েন।

তামিলনাড়ুর স্কুলে হাইকোর্টের নির্দেশ অনুসারে ‘বন্দে মাতরম’ গানটি গাওয়া বাধ্যতামূলক করা হয়েছে।

বিধানসভায় এ নিয়ে দাবি জানানো হলে আজমি বলেন, দেশের বাইরে পাঠিয়ে দেওয়া হলেও তিনি বন্দে মাতরম গাইবেন না। এআইএমআইএমের বিধায়ক ওয়ারিশ পাঠান বলেন, মাথায় বন্দুক ধরলেও তিনি এই গান গাইবেন না।

মহারাষ্ট্রের সিরদিতে রাজ্যের মন্ত্রী চন্দ্রকান্ত পাতিল গত শনিবার বলেন, ‘বন্দে মাতরম’ এবং ‘ভারত মাতা কি জয়’ বলতে কারও সমস্যা নেই।

বন্দে মাতরম বঙ্কিমচন্দ্র চট্টোপাধ্যায় রচিত আনন্দমঠ উপন্যাসের অন্তর্ভুক্ত একটি গান। ১৯৫০ সালে ভারতীয় প্রজাতন্ত্রের রাষ্ট্রগীতের স্বীকৃতি পায় এই গানটি।