সাম্প্রতিক

প্রেমের টানে কুমিল্লায় ব্রাজিলের তরুণী

ফেসবুকে যোগাযোগ। এর সূত্র ধরেই মন দেওয়া নেওয়া। সেই প্রেমের টানে দক্ষিণ আমেরিকার দেশ ব্রাজিল থেকে কুমিল্লায় প্রেমিকের বাড়িতে চলে এলেন জুলিয়ানা। অবশেষে পছন্দের পুরুষের সঙ্গে বিয়েও সেরে ফেললেন জুলিয়ানা। প্রেমের সফল পরিণতি বলবেন না এটিকে!

জুলিয়ানার প্রেমিক কাম স্বামীর নাম আবদুর রব হিরু। কুমিল্লার লাকসাম উপজেলার দোখাইয়া গ্রামে তাঁর বাড়ি। বাবার নাম আবুল খায়ের। মনের সেই হিরুকেই শেষ পর‌্যন্ত জীবন সঙ্গী করলেন জুলিয়ানা।

বিদেশিনীর সঙ্গে প্রেমের বিষয়ে হিরু জানান, সিলেট মদনমোহন কলেজে রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগে স্নাতক শেষবর্ষে পড়ার সময় জীবিকার তাগিদে পাড়ি জমান বাহরাইনে। সেখানে ইংরেজি ভাষা শিক্ষা সেন্টারে ২০১২ সালের ৬ জুলাই তাঁর সঙ্গে জুলিয়ানার পরিচয় হয়। পরে ফেসবুকে জুলিয়ানার আইডিতে লাইক দেন। জুলিয়ানাও আমাকে লাইক দিতেন। এভাবেই শুরু হয় মেসেজ আদান-প্রদান ও কথাবার্তা। এক সময় তা প্রেমে রূপ নেয়।

এরপর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেই জুলিয়ানার সঙ্গে হিরুর বিয়ের কথাবার্তা শুরু হয়। জুলিয়ানা তার বাবা মারকোস জিয়ানিংয়ের সঙ্গে আলোচনা করে বাংলাদেশে আসার সিদ্ধান্ত নেন। গত ৩১ অক্টোবর বাবা-মেয়ে দু’জন বাংলাদেশে আসেন। ঢাকায় বিমানবন্দর থেকে তাদের স্বাগত জানিয়ে আনেন হিরু ও তার স্বজনরা।

পরে কাকরাইল কাজী অফিসে গিয়ে জুলিয়ানা ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেন। ৫ লাখ টাকা দেনমোহরে তাদের বিয়ে হয়। এরপর মিরপুর-২ নম্বরে একটি ভাড়া বাসায় উঠেন তারা।

গত সপ্তাহে জুলিয়ানা ও তার বাবাকে নিয়ে কুমিল্লার লাকসামের নিজ বাড়িতে আসেন হিরু। এই এখন কুমিল্লার লোকজনের মুখে মুখে।

হিরু জানান, জুলিয়ানা কিছু বাংলা বলতে শিখেছেন। এই বিয়েতে দুই পরিবার-ই খুশি।

হিরুর বাবা আবুল খায়ের বধূবরণ উপলক্ষে গত ১ নভেম্বর ৩০০ লোকের মেজবানির আয়োজন করেন। স্থানীয় এক ব্যক্তি অটোরিকশা নিয়ে ওই নবদম্পতিকে আশপাশের এলাকা ঘুরে দেখান। জুলিয়ানার বাবা জিয়ানিংও আনন্দে অটোরিকশার চালকে আসনে বসে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেন। নবদম্পতিকে নিয়ে তিনিও আনন্দের কথা জানিয়েছেন সবাইকে।

আপনার মন্তব্য লিখুন

error: Content is protected !!