সাম্প্রতিক

প্রধানমন্ত্রীর সংলাপের ডাকে ফখরুলের ‘শর্ত’

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ডাকে সংলাপে যোগ দিতে শর্ত দিয়েছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। কী নিয়ে কথা হবে, সেটি আগে জানানোর কথা বলেছেন তিনি। এও বলেছেন যে, ‘আগের মতো’ সংলাপ হলে সেটা অর্থবহ হবে না।

সোমবার দুপুরে সিলেটে হযরত শাহজালাল (রহ.) এর মাজার জিয়ারত শেষে সাংবাদিকদের এ কথা বলেন জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের মুখপাত্র।

আগের দিন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের জানান, ভোটের আগে প্রধানমন্ত্রী যেমন সব দলের সঙ্গে এক টেবিলে বসেছিলেন, তেমনি আবার তিনি কথা বলতে চান। অচিরেই সবাইকে আমন্ত্রণ জানানো হবে।

৩০ ডিসেম্বরের ভোটের পর বিএনপি এবং ঐক্যফ্রন্টের পক্ষ থেকেও সংলাপের কথা বলা হচ্ছিল। পাশাপাশি ভোট বাতিল করে নতুন করে নির্বাচন দেওয়ার দাবি জানানো হয়।
 
মির্জা ফখরুল বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী সংলাপের আহ্বান জানিয়েছেন। কিন্তু আগের মত সংলাপ হলে সেটা অর্থবহ হবে না। তাছাড়া সংলাপের এজেন্ডা কী সেটাও জানি না। আমাদের এজেন্ডা একটাই নির্বাচন বাতিল করতে হবে। তবে সংলাপের এজেন্ডা জানলে সেটা বিবেচনা করবে ঐক্যফ্রন্ট।’’

ঐক্যফ্রন্ট নেতারা সিলেট যান ভোটের দিন সহিংসতায় নিহত ছাত্রদল নেতার পরিবারকে সহমর্মিতা জানাতে। সকালে সিলেট ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরে পৌছান মির্জা ফখরুল ছাড়াও জেএসডির আ স ম আবদুর রব, কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের আবদুল কাদের সিদ্দিকী, গণফোরামের মোস্তফা মহসিন মন্টু ও সুব্রত চৌধরী।

পরে হযরত শাহজালাল (রহ.) এর মাজার জিয়ারত করেন ঐক্যফ্রন্ট নেতারা। ফখরুল বলেন, ‘গত ৩০ ডিসেম্বরের নির্বাচন বাংলাদেশের রাজনৈতিক ইতিহাসের একটি কলঙ্কজনক অধ্যায়। এর মাধ্যমে জনগণের অধিকার হরণ করে নেয়া হয়েছে। সংবিধান লঙ্ঘন করা হয়েছে। জনগণের রায়কে ডাকাতি করা হয়েছে।’

‘আমরা এ নির্বাচন বাতিল করে নতুন নির্বাচন দিয়ে মানুষের অধিকার প্রতিষ্ঠার সুযোগ করে দেয়ার দাবি জানাচ্ছি।’

আগামী উপজেলা নির্বাচনে বিএনপি অংশ নিচ্ছে কি না এমন প্রশ্নে দলের মহাসচিব বলেন, ‘স্থানীয় সরকার নির্বাচন খুব একটা মুখ্য ব্যাপার হয়ে দাঁড়ায় না। যে নির্বাচন কমিশন আছে তারা একটা অযোগ্য কমিশন। তারা কীভাবে নির্বাচন আয়োজন করেছে সবাই দেখেছে। তাদের অধীনে আগামী নির্বাচনগুলো কী হবে সেটা নিয়ে প্রশ্নের কোন প্রয়োজন নেই।’

পরে ঐক্যফ্রন্ট নেতারা সিলেটের শাহপরাণ (রহ.) এ মাজার জিয়ারত করে সিলেটের বালাগঞ্জে যান ছাত্রদল নেতা সায়েম আহমদ সুহেলের বাড়িতে যান।