সাম্প্রতিক

‘থ্যাংক ইউ পিএম’ নির্বাচনী প্রচার নয়: ইসি

টেলিভিশন চ্যানেলে ‘থ্যাংক ইউ পিএম’ নামে যে প্রচার চালানো হচ্ছে সেটি নির্বাচনী আচরণবিধির লঙ্ঘন নয় বলে মনে করে নির্বাচন কমিশন। এটি নির্বাচনী প্রচার বলে বিএনপি যে অভিযোগ করেছে, তার জবাব দিতে গিয়ে নির্বাচন কমিশনার রফিকুল ইসলাম এ কথা বলেন।

রবিবার নির্বাচন কমিশনে নিজ কার্যালয়ে এই কমিশনার বলেন, ‘নির্বাচনি প্রচারণা হলে অবশ্যই ব্যবস্থা নেব। কিন্তু একটা সরকার আছে, সেই সরকারের উন্নয়নগুলো তুলে ধরছে।  বিভিন্নভাবে এটা তুলে ধরছে, বেসরকারি টেলিভিশনেও এটা প্রচার হচ্ছে। বেসকারি টেলিভিশন তাদের একটা নিজস্ব নীতিমালা মেনে এটা প্রচার করছে। সেখানে হস্তক্ষেপ করা কি ঠিক হবে? আপনারাই বলুন।’

সরকার প্রচারণা করতে পারে কি না এমন প্রশ্নে রফিকুল বলেন, ‘এটা যদি প্রচারণা হয় তাহলে তো কোনো নিউজই আপনারা ছাপাতে পারবেন না। যেমন রূপপুর বিদ্যুৎকেন্দ্র, পদ্মাসেতু। এগুলোর ব্যপারে যদি লিখেন এত শতাংশ উন্নয়ন হয়েছে। এটা তো সরকারি প্রচারণা হয়ে যাবে তাহলে।’

থ্যাংক ইউ পিএম কি একই বিষয়?- এমন প্রশ্নে রফিকুল ইসলাম বলেন, ‘একই জিনিস তো। আমি বুঝতে পারছি না অন্য রাজনৈতিক দল তাদের কর্মকা- তুলে ধরলে আপনারা ( মিডিয়া) কি এটা সম্প্রচার করেন না। আমরা কি সে ব্যাপারে কোনো নিষেধাজ্ঞা দিয়েছি?

‘আমরা কোনোভাবেই ডিজিটাল প্রচারণার উপর নিষেধাজ্ঞা দেইনি। আমরা শুধু বলেছি নির্বাচনী গণসংযোগ করতে পারবে না। এখন এটা (থ্যাংক ইউ পিএম) নির্বাচনী প্রচারণা কেউ অভিযোগ করলে আমাদের বসতে হবে। দেখতে হবে। দেখে আমাদের সিদ্ধান্ত নিতে হবে, সত্যি সত্যি নির্বাচনী প্রচারণা কি না। এটা নির্বাচনী প্রচারণা যদি হয় তাহলে আমরা এটা বন্ধ করার জন্য পদক্ষেপ নেব।’

পুলিশকে কারো রাজনৈতিক পরিচয় জানতে বলেনি ইসি

নির্বাচনী কর্মকর্তা হিসেবে নিয়োগ পাওয়া কারও রাজনৈতিক পরিচয় জানতে পুলিশকে কোনা নির্দেশনা দেয়া হয়নি বলে জানিয়েছেন নির্বাচন কমিশনার রফিকুল ইসলাম। এই কর্মকর্তাদের কোনো হয়রানি না করারও নির্দেশ দিয়েছে কমিশন।

নির্বাচনী কর্মকর্তাদেরকে ফোন করে তার রাজনৈতিক পরিচয় জানার চেষ্টার খবর প্রকাশের প্রতিক্রিয়ায় এই কথা জানানো হয়েছে কমিশনের পক্ষ থেকে। কমিশনার রফিকুল ইসলাম বলেছেন, ‘রিটার্নিং অফিসারের অনুমতি ছাড়া পুলিশ কাউকে হয়রানি করতে পারবে না। কেউ করে থাকলে অতি উৎসাহী হয়ে করছে।’

‘কারো রাজনৈতিক কী পরিচয় সেটা আমরা জানাতে বলিনি। আমাদের নির্দেশনা হলো যারা নির্বাচনী কাজে নিয়োজিত হবে তাদের ব্যাপারে কোনো ধরনের আইনি সমস্যা আছে কি না।’

এক প্রশ্নের জবাবে রফিকুল ইসলাম বলেন, পুলিশের কাছে প্রিজাইডিং কর্মকর্তাদের তালিকা যাওয়ার কথা না।’

আপনার মন্তব্য লিখুন

error: Content is protected !!