সাম্প্রতিক

চাঁদা দিতে অস্বীকার করায় চালক-হেলপারকে পিটিয়ে আহত করে নগদ টাকা ছিনতাই

কুষ্টিয়ার বটতৈল-আলমডাঙ্গা সড়কের বটতৈলে ট্রাক থামিয়ে চাঁদাবাজি করার সময় এক ট্রাক চালক ও হেলপারকে রড দিয়ে পিটিয়ে হাত-পা ভেঙে দিয়েছে স্থানীয় চাঁদাবাজ সন্ত্রাসীরা। এ সময় চালকের কাছে থাকা নগদ ২৫ হাজার টাকা ছিনিয়ে নিয়েছে ওই সন্ত্রাসীরা। এ ঘটনায় কুষ্টিয়ার বটতৈল আলমডাঙ্গা-পোড়াদহ সড়কে প্রায় ঘন্টাব্যাপী ৪ কিলোমিটার যানজট সৃষ্টি হয়। এতে শত শত  ছোট বড় যানবাহন আটকা পড়ে চরম দূর্ভোগে পরে স্কুল কলেজগামী শিক্ষার্থী ও যাত্রী পথচারীরা। পরে সংবাদ পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে যানজট নিরসন করলে যান চলাচল স্বাভাবিক হয়। আহত চালক ও স্থানীয়রা জানান, বটতৈল এলাকার উজ্জল, বাহার, রুবেলসহ ৪/৫ জন স্থানীয় চাঁদাবাজ দীর্ঘদিন ধরে সড়কে নছিমন, ট্রাক থামিয়ে চাঁদাবাজি করে আসছিল। গতকাল শনিবার সকাল ৯টার দিকে আলমডাঙ্গা  থেকে আসা একটি (চুয়াডাঙ্গা-ট-১১-৭১৮) ট্রাক বটতৈল অভিমুখে আসার সময় ওই চাঁদাবাজরা ট্রাকটিকে থামানোর  চেষ্টা করে। এ সময় ট্রাক চালক একটু দূরে গিয়ে থামালে ক্ষিপ্ত হয় চাঁদাবাজরা। তারা চালক ও হেলপারকে গাড়ি থেকে  টেনে হিছড়ে নামিয়ে নেয়ার চেষ্টা করে। একপর্যায়ে চালক ও  হেলপারকে নামিয়ে রড দিয়ে বেধড়ক পিটিয়ে হাত পা ভেঙে  দেয় এবং চালকের কাছে থাকা নগদ ২৫ হাজার টাকা ছিনিয়ে নেয়। এ সময় চালক ও হেলপারের আতœচিৎকারে আশপাশের লোকজন ছুটে এলে চাঁদাবাজরা পালিয়ে যায়। পরে স্থানীয়রা চালক মুক্তার আলী (৪০) ও হেলপার জাহাঙ্গীর (৩৫) কে উদ্ধার করে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করে।

এদিকে এ ঘটনার পর কুষ্টিয়া পোড়াদহ সড়কে বটতৈল মোড়  থেকে কবুরহাট পর্যন্ত প্রায় ৩ কিলোমিটার  দীর্ঘ যানজটে পড়ে স্কুল কলেজপড়ুয়া শিক্ষার্থী ও যাত্রী সাধারণ চরম দূর্ভোগে পড়ে। খবর পেয়ে কুষ্টিয়া মডেল থানা পুলিশ ঘটনা স্থলে পৌছে পরস্থিতি স্বাভাবিক করলে যান চলাচল শুরু হয়।

আপনার মন্তব্য লিখুন

error: Content is protected !!