সাম্প্রতিক

খোকসায় মাদক বিক্রেতারাই বেশী শক্তিশালী!

মাদক বিক্রিতে বাধা দোয়া ও পুলিশের কাছে সংবাদ দেওয়ার অপরাধে কুষ্টিয়ার খোকসা উপজেলার খোকসা জানিপুর সরকারি বিদ্যালয়ের দপ্তর হোসেন আলীর দুই সন্তান মিঠুন শশেখ (২৪) ও সুমন শেখ (১৮) কে বেধড়ক পেটালো চিহ্নিত উপজেলার মাদক বিক্রেতারা।

স্থানীয় এলাকাবাসী ও হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে ২ ফেব্রুয়ারি দুপুর তিনটার সময় থানা রোডে কালী বাড়ির পাশেই মোহনা ফার্নেসির কর্মচারী হোসেন আলী শেখের দু ‘ছেলে মিঠুন ও সুমন শেখ কে রড ও বাটাম দিয়ে বেধড়ক পিটিয়ে গুরুতর আহত করে পালিয়ে যায়।
আহত মিঠুন ও সুমনের পিতা সংবাদ পেয়ে স্কুল থেকে ছুটে দুই সন্তানকে উদ্ধার করে হাসপাতালে জরুরি বিভাগে নিয়ে আসেন। জরুরী বিভাগের ডাক কর্তব্যরত ডাক্তার নিলুফার আক্তার জানান,

মিঠুনের মাথায় বেশ কয়েকটি শিলাইদহ হয়েছে এবং সুমনের শরীরে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে তবে দুজনেই আশঙ্কামুক্ত বর্তমানে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। আহত মিঠুন ও সুমন স্থানীয় সাংবাদিকদের জানান, গত একসপ্তাহ আগে এলাকায় চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী লিটন, এনামুল, সাগর ও সেলিম খোকসা কালিবাড়ীতে মাদক বিক্রি করছিল। আমরা মাদক বিক্রিতে বাধা দিলে ও পরে এতে পুলিশ কে সংবাদ দিলে মাদক বিক্রেতিরা ক্ষিপ্ত হয়ে শনিবার আমাদের দু’ভাইকে মারেছে।

এ ব্যাপারে মিঠুন সুমনের বাবা হোসেন আলী বাদী হয়ে খোকসা থানায় ৫ জনকে আসামী করে মামলা দায়ের করেন। মামলা নয – ০১। তারিখ ০৩/০২/২০১৯ ইং। ধারা ১৪৩/ ৪৪৮/ ৩২৩/ ৩২৪/ ৩২৫/ ৩২৬/ ৩০৭/ ৫০৬/ ১১৪ ও ৩৭৯।

এ দিকে ঘটনার ৩দিন অতিবাহিত হলেও চিহ্নিত এলাকার মাদক ব্যবসায়ীরা কেহই গ্রেপ্তার না হওয়ায় ভিকটিমরা ভয়ে দিন কাটাচ্ছেন।