সাম্প্রতিক

খাশোগি হত্যায় যে ১৫ জন

তুরস্কের ইস্তাম্বুলের সৌদি দূতাবাসের ভেতরে সাংবাদিক জামাল খাশোগিকে হত্যায় জড়িত ছিল ১৫ জনের একটি দল। খাশোগিকে হত্যা করতেই দলটি আঙ্কারা এসেছিলেন। তাদের বিষয়ে বিস্তারিত তুলে ধরে প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে মার্কিন গণমাধ্যম ওয়াশিংটন পোস্ট।

ওয়াশিংটন পোস্ট জানিয়েছে, ‘খাশোগিকে হত্যার উদ্দেশ্যেই দুই তারিখে সৌদি থেকে তুরস্কে আসেন সৌদির ১৫ সদস্যের দল। খাশোগিকে হত্যায় এই দলটি সরাসরি জড়িত বলেও দাবি করা হয়েছে প্রতিবেদনটিতে।

এসব সদস্যদের পাসপোর্ট, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ও বিভিন্ন সূত্র থেকে তথ্য নিয়ে তাদের পরিচয় প্রকাশ করা হয়। সেখানে পাসপোর্টে উল্লেখিত তথ্য থেকে জানা যায়, এই দলের একজন ২০১৪ সালের পর থেকে পাঁচবার যুক্তরাষ্ট্র সফর করেছেন। তাদের মধ্যে অন্তত তিনজন সম্প্রতি সৌদি রাজপরিবারের সঙ্গে সফর করেছেন। অন্য একজন চলতি বছরে ফ্রান্স, যুক্তরাষ্ট্র ও স্পেন সফরে যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানের সঙ্গী ছিলেন। এছাড়া সৌদিতে ব্যবহৃত জনপ্রিয় অ্যাপ কলার আইডি থেকে জানা গিয়েছে এই দলের দুইজন মোহাম্মদ বিন সালমানের অফিসে কাজ করেন।

কলার আইডি অ্যাপ, বিমানবন্দর ও হোটেলের ভিডিও ফুটেজ থেকে তথ্য নিয়ে ১৫ জনের ওই দলের মধ্যে ১২ জনের পরিচয় সনাক্ত করেছে ওয়াশিংটন পোস্ট।

তুর্কি সরকারের পক্ষ থেকেও বলা হয়েছে যে, এই ১৫ জনের দলটিই খাশোগি হত্যায় ভূমিকা পালন করেছে। এদের সাতজনের পাসপোর্টের কপিও হাতে পেয়েছে ওয়াশিংটন পোস্ট।

এই ১৫ জনের একজন হলেন মোহাম্মদ সাদ এইচ আলজাহরানি। তিনি কলার আইডির মাধ্যমে সৌদি রাজ পরিবারের নিরাপত্তা সদস্যের সঙ্গে কথা বলেছেন। এ বিষয়ে ইস্তাম্বুলের সৌদি দূতাবাস কোনো মন্তব্য করতে রাজি হননি।

১৫ জনের এই দলটি দুই অক্টোবরে রিয়াদ থেকে ইস্তাম্বুলে আসেন। তাদের মধ্যে একটি দল বিমানে করে পহেলা অক্টোবর দিন শেষে রিয়াদ থেকে রওনা দিয়ে দুই অক্টোবর সকালে তুরস্কে পৌঁছে এবং ওইদিন সন্ধ্যায়ই তারা ফিরে যান। অপর একটি দল দুই অক্টোবর অন্য একটি বিমানে করে রিয়াদে ফিরে যান।

১৫ সদস্য হলেন- সৌদি বিমানবাহিনীর লেফটেনেন্ট মেশাল সাদ এম আলবোস্তানি (৩১); সৌদির সাধারণ নিরাপত্তা বিভাগের ফরেনসিক প্রধান সালাহ মোহাম্মদ আল তুবাইগি (৪৭); সৌদির বিশেষ বাহিনীর সদস্য  নাইফ হাসান এস আলআরাফি (৩২); সৌদি রাজ পরিবারের সদস্য মোহাম্মদ সাদ এইচ আলজাহরানি (৩০), আব্দুল আজিজ মোহাম্মদ এম আলহাউসাউই (৩১), ফাহাদ শাবিব এ আলবালাউই (৩৩); ইন্টেলিজেন্স বিভাগে কর্মরত মানসুর ওসমান এম আবাহুসাইন (৪৬); রাজপরিবারের নিরাপত্তারক্ষী বাহিনীর সম্ভাব্য সদস্য খালিদ আয়েধ জি আলোতাইবি (৩০); সৌদি বিমানবাহিনীর মেজর ওয়ালেদ আব্দুল্লাহ এম আলসেহরি (৩৮); সৌদি সেনাবাহিনীর লেফটেনেন্ট থার গালিব টি আল হারবি (৩৯); সৌদি কূটনীতিক মাহের আব্দুল আজিজ এম মুতরিব (৪৭); সৌদির প্রাথমিক ইন্টেলিজেন্স এজেন্সিতে কর্মরত মুস্তাফা মোহাম্মদ এম আলমাদানি (৫৭); সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানের সঙ্গে কর্মরত সাইফ সাদ কিউ আলকাহাতনি (৪৫)। এছাড়া বদর লাফি এম আলোতাইবি (৪৫) এবং তুরকি মুসাররফ এম আলসেহরি (৩৬) এই দুজনের বিস্তারিত পরিচয় জানা যায়নি।

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল প্রকাশ করা হবে না