সাম্প্রতিক

কাদিয়ানী সম্মেলন বন্ধ না হলে আমি আন্দোলনে শরিক হবো: আল্লামা শফী

‘পঞ্চগড়ে কাদিয়ানীদের তিন দিনব্যাপী সম্মেলন অবিলম্বে বন্ধ করতে হবে। তা না হলে আমি এই আন্দোলনে শরিক হবো’। মঙ্গলবার (১২ ফেব্রুয়ারি) বিকাল ৪টায় হেফাজতের পাঠানো এক বিবৃতিতে এমন হুশিয়ারি দিয়েছেন হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের আমির আল্লামা শাহ আহমদ শফী। বিবৃতিতে এই হুশিয়ারি দিয়ে পঞ্চগড়ে কাদিয়ানীদের সম্মেলন বন্ধে সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

বিবৃতিতে আল্লামা শফী বলেন, ‘কাদিয়ানীদের এই সম্মেলন অবিলম্বে বন্ধ করতে হবে। এ ব্যাপারে যারা আন্দোলন করছে তাদের সঙ্গে আমি একাত্মতা ঘোষণা করছি। কাদিয়ানীদের এই সম্মেলন বন্ধ না হওয়া পর্যন্ত সর্বাত্মক আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার জন্যে সর্বস্তরের মুসলমানদের প্রতি আহ্বান জানাচ্ছি। যদি এই সম্মেলন বন্ধ করা না হয় প্রয়োজনে আমি পঞ্চগড়ে গিয়ে আন্দোলনে শরিক হবো’।

কাদিয়ানীরা পাঞ্জাবের মির্জা গোলাম আহমদ কাদিয়ানীকে তাদের নবী মানে এমন দাবি করে তিনি বলেন, ‘ তারা মহানবী হজরত মুহাম্মদ (স.)-কে সর্বশেষ নবী মানে না। তাই তারা নিশ্চিতভাবে কাফের। অথচ তারা নিজেদেরকে আহমদিয়া মুসলিম পরিচয় দিয়ে সাধারণ মুসলমানদের সঙ্গে প্রতারণা করছে। এরই অংশ হলো পঞ্চগড়ে তিন দিনব্যাপী কাদিয়ানী সম্মেলন। খতমে নবুওয়াতের বরকতময় আন্দোলন যারা করছেন, তারাসহ সব দ্বীনি আন্দোলনের নেতাকর্মীদের কালবিলম্ব না করে পঞ্চগড় গিয়ে প্রিয় নবীজির খতমে নবুওয়াতের চিরশত্রু কাফের কাদিয়ানীদের বিরুদ্ধে কঠোর আন্দোলন গড়ে তোলার আহ্বান জানাচ্ছি’।

এদিকে হেফাজতের সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা আজিজুল হক ইসলামাবাদী জানান, তিন দিনব্যাপী (২২, ২৩ ও ২৪ ফেব্রুয়ারি) কাদিয়ানীদের সম্মেলন অবিলম্বে বন্ধের দাবিতে বুধবার (১৩ ফেব্রুয়ারি) সকাল ১১টায় হাটহাজারী মাদ্রাসায় একটি সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়েছে।