সাম্প্রতিক

৩১২ রানে অলআউট বাংলাদেশ

৩১২ রানে অলআউট বাংলাদেশ

৩১২ রানে অলআউট বাংলাদেশ

শ্রীলংকার বিপক্ষে প্রথম টেস্টের প্রথম ইনিংসে ৩১২ রানে অলআউট হয়েছে বাংলাদেশ। ফলে ১৮২ রানে লিড নিয়ে দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করতে নামবে শ্রীলংকা।
এর আগে বৃহস্পতিবার তৃতীয় দিনের শুরুটা ভালো হয়নি বাংলাদেশের। বুধবার ২ উইকেটে ১৩৩ রান নিয়ে দ্বিতীয় দিনের খেলা শেষ করে বাংলাদেশ। গতকালের ৬৬ রানের সঙ্গে মাত্র পাঁচ রান যোগ করে সাজঘরে ফিরেন ওপেনার সৌম্য সরকার।

সুরঙ্গা লাকমালের বলে সৌম্য কুমারার তালুবন্দি হন, দলীয় ১৪২ রানে। তিনি ব্যক্তিগত ৪ রানে সুরঙ্গা লাকমালের বলেই জীবন পেয়েছিলেন। জীবন পেয়েও নিজের ইনিংসকে বড় করতে ব্যর্থ হলেন এই বাম-হাতি ওপেনার।

এরপর সাজঘরে ফিরে যান সাকিব আল হাসান। ক্রিজে এসে অনেকটা ওয়ানডে স্টাইলে ব্যাট চালিয়ে ১৯ বলে ২৩ রান করে সাদাকানের বলে উইকেটের পেছনে তিনি ধরা পড়েন দলীয় ১৭০ রানে। দলীয় ১৮৪ রানে কুমারার বলে ৮ রান করে বোল্ড হন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। আর ব্যক্তিগত ৫ রান করে হেরাথের বলে গুনারত্নের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন লিটন কুমার দাস।

এরপর অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম তরুণ মেহেদী হাসান মিরাজকে নিয়ে দলের হাল ধরেন। আবারও নিজের যোগ্যতার প্রমাণ দিলেন বাংলাদেশের টেস্ট অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম। দলের বিপর্যয়ে অলরাউন্ডার মেহেদী হাসান মিরাজকে সঙ্গে নিয়ে ফলোঅন এড়ান মুশফিক। তাদের জুটিতে আসে ১০৬ রান।

এরপরই বাংলাদেশ শিবিরে জোড়া আঘাত হানেন দিলরুয়ান। পর পর দুই বলে মিরাজ (৪১) এবং তাসকিন (০)  দিলরুয়ানের বলে আউট হন।

বাংলাদেশের শেষ ভরসা মুশফিকও ৮৫ রান করে হেরাথের বলে সাজঘরে ফেরেন। বাংলাদেশের শেষ ব্যাটসম্যান হিসেবে আউট হন মোস্তাফিজুর রহমান। তিনি ৪ রান করে হেরাথের বলে আউট হন। শেষ ১৪ রানে বাংলাদেশ ৪ উইকেট হারিয়েছে।

এর আগে গলে টস জিতে স্বাগতিক শ্রীলংকা কুশাল মেন্ডিসের ১৯৪, আসেলা গুনারত্নের ৮৫, ডিকভেলার ৭৫ রান ও পেরেরার ৫১ রানে ভর করে ৪৯৪ রান করে।

বাংলাদেশের হয়ে মেহেদী হাসান মিরাজ ৪টি এবং মোস্তাফিজুর রহমান ২টি উইকেট নেন।

জবাবে দ্বিতীয় দিন শেষে বাংলাদেশ দুই উইকেট হারিয়ে করেছিল ১৩৩ রান।

error: Content is protected !!