সাম্প্রতিক

সিদ্ধান্ত ছাড়াই বিএনপির বৈঠক মুলতবি

দলের তৃণমূলের নেতাদের পরামর্শের ভিত্তিতে দলটির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তি, জাতীয় ঐক্য, আন্দোলন ও সাংগঠনিক বিষয় নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্যরা। তবে এসব বিষয়ে এখনও নির্দিষ্ট কোন সিদ্ধান্ত নেয়নি দলটি। শনিবার সকালে চেয়ারপারসনের গুলশান রাজনৈতিক কার্যা্লয়ে বিএনপির স্থায়ী কমিটির বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। সেখানে এসব বিষয়ে আলোচনা হয় বলে বৈঠক সূত্রে জানা গেছে।

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমীগরের সভাপতিত্বে এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। সূত্রে জানা গেছে, একই বিষয় নিয়ে গত বুধবার বিএনপি চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে বৈঠক করেছেন দলটির স্থায়ী কমিটির সদস্যরা। ওই বৈঠকের ধারাবাহিক অংশ হিসেবে আজকের এই বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। তবে আজও নির্দিষ্ট কোন সিদ্ধান্তে পৌঁছাতে পারেননি তারা। তাই খালেদা জিয়ার মুক্তি, জাতীয় ঐক্য, আন্দোলন ও সাংগঠনিক বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিতে আবারও বৈঠক করবেন বিএনপির শীর্ষ নেতারা। কিন্তু কবে নাগাদ এই বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে, সেবিষয়ে বৈঠকে কিছু বলা হয়নি।

গত ৩ ও ৪ আগষ্ট দলের ৭৮টি সাংগঠনিক জেলার নেতাদের নিয়ে ঢাকায় দুই দিনব্যাপী বৈঠক করেছে বিএনপি। ওই বৈঠকে তৃণমূলের নেতারা, জাতীয় ঐক্যের বিষয়ে জামায়াতকে বাদ দেওয়াসহ বেগম জিয়াকে মুক্ত করতে লংমার্চ ও মানবপ্রাচীরসহ বিভিন্ন কর্মসূচি করার পরামর্শ দেন। তবে আজ প্রায় সাড়ে ৫ ঘন্টাব্যাপী এই বৈঠকে এসব বিষয় নিয়ে আলোচনা হলেও কোন সিদ্ধান্তে পৌঁছাতে পেরে বৈঠক মুলতবি ঘোষণা করা হয়।

বৈঠক সূত্রে আরো জানা গেছে, বিএনপির স্থায়ী কমিটির নেতাদের ভাষ্য, জাতীয় ঐক্য সৃষ্টির পাশাপাশি বেগম জিয়ার মুক্তি ও নির্বাচনের জন্য আন্দোলন গড়ে তুলতে হবে। আর এই কর্মসূচিগুলোতে সবার সক্রিয় অংশগ্রহণ নিশ্চিত করতে হবে এবং আন্দোলত যাতে সফল হয় এবং দলকে ঐক্যবদ্ধ করে সংলাপের জন্য সরকারকে চাপ প্রয়োগ করা। আর এজন্য যার যার জায়গা থেকে নেতাকর্মী ও জনগণকে উদ্বুদ্ধ করতে হবে। এছাড়া যেসকল জেলা, থানা, ওয়ার্ডে বিএনপি ও এর অঙ্গ-সংগঠনের কমিটি দেওয়া হয়নি, সেগুলো খুব শিগগির দিতে হবে এবং যেখানে আংশিক কমিটি দেওয়া হয়েছে- সেখানে পূর্নাঙ্গ কমিটি দিতে হবে বলেও বৈঠকে আলোচনা হয়। বৈঠকে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, ব্যারিস্টার জমির উদ্দিন সরকার, ড. মঈন খান, লে. জেনারেল (অব.) মাহবুবুর রহমান, মির্জা আব্বাস, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, নজরুল ইসলাম খান উপস্থিত ছিলেন।

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল প্রকাশ করা হবে না

error: Content is protected !!