সাম্প্রতিক

শীঘ্রই আসছে ৯ কোটি ডিজিটাল পরিচয়পত্র

smart-card-ec

ডিজিটাল ফরম্যাটে ৯ কোটি জাতীয় পরিচয়পত্র তৈরি ও বিতরণের জন্য ফ্রান্সের একটি কোম্পানির সঙ্গে চুক্তি স্বাক্ষর করেছে বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশন। ম্যানুয়াল পরিচয়পত্রের পরিবর্তে ডিজিটাল ফরম্যাটে এই ৯ কোটি পরিচয়পত্র তৈরি হবে।

স্মার্টকার্ড (ডিজিটাল জাতীয় পরিচয়পত্র) প্রস্তুত ও বিতরণের জন্য ফরাসি কোম্পানি ওবারথু টেকনোলজির সঙ্গে নির্বাচন কমিশনের চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। কোম্পানিটি ৯ কোটি স্মার্টকার্ড প্রস্তুত ও বিতরণ করবে।

বুধবার বিকেলে আগারগাঁওয়ের জাতীয় পরিচয়পত্র নিবন্ধন অনুবিভাগ কার্যালয়ে ফরাসি কোম্পানি অবারথু টেকনোলজির সঙ্গে এক চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে ইসি সচিব মো. সিরাজুল ইসলাম এ কথা জানান।

চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে সচিব সিরাজুল ইসলাম বলেন, ‘দীর্ঘসময় প্রতীক্ষার পর আমরা আজকের এই মুহূর্তটা পেয়েছি। তবে চুক্তি স্বাক্ষরের চেয়ে ৯ কোটি নাগরিকের হাতে স্মার্টকার্ড তুলে দেওয়া আমাদের জন্য বড় চ্যালেঞ্জ।’

সচিব বলেন, ‘২০০৮ সালে যখন আমরা ছবিযুক্ত ভোটার তালিকা প্রণয়নের কাজ শুরু করেছিলাম, সেটিও আমাদের জন্য বড় চ্যালেঞ্জ ছিল। বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর সহযোগিতায় সেই চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করেছি।’

তিনি বলেন, বিভিন্ন দেশের চারটি কোম্পানি এ কাজ পেতে আবেদন করেছিল। পরে যাচাই-বাছাই এবং সর্বনিম্ন মূল্য বিবেচনা করে ফরাসি ওই কোম্পানিকে স্মার্টকার্ড প্রস্তুত ও বিতরণের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।

তিনি আরো জানান, বর্তমানে ভোটাদের হাতে যে লেমিনেটিং জাতীয় পরিচয়পত্র দিচ্ছি, যা অন্তত ২২টি কাজে ব্যবহার করা হচ্ছে। তাই সর্বোচ্চ নিরাপত্তা ও ব্যবহার নিশ্চিত করতে উন্নত মানের স্মাটকার্ড দেওয়া হবে।

ইসি সচিব মো. সিরাজুল ইসলাম বলেন, এর ব্যয় ধরা হয়েছে ৭৯৬ কোটি ২৬ লাখ ৭৭ হাজার ৮৫৯ টাকা। ২৬ মার্চ পরিচয়পত্র বিতরণের টার্গেট নেওয়া হয়েছে। ‘গত বিজয় দিবসে ভোটারদের হাতে স্মার্টকার্ড তুলে দেওয়ার পরিকল্পনা ছিল। কিন্তু বিভিন্ন কারণে তা সম্ভব হয়নি। তবে স্বাধীনতা দিবসে ভোটারদের হাতে স্মার্টকার্ড তুলে দেওয়ার লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছি আমরা। এতটুকু বলতে পারি, কার্ড বিতরণ না করতে পারলেও সেদিন প্রতীকী কার্ড দেওয়ার মাধ্যমে স্মার্টকার্ড বিতরণ কার্যক্রম শুরু করব।’

চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে ফরাসি কোম্পানির ব্যবস্থাপনা পরিচালক ক্রিস্টোফার ফোন্টিনা, বাংলাদেশে নিযুক্ত ফ্রান্সের রাষ্ট্রদূত মিস টিনা, বিশ্বব্যাংকের ভারপ্রাপ্ত আবাসিক প্রতিনিধি ক্রিস্টিনা কাইমস ও জাতীয় পরিচয়পত্র নিবন্ধন অনুবিভাগের মহাপরিচালক উপস্থিত ছিলেন।

সাম্প্রতিক মতামক

মতামত

x

Check Also

বৃহত্তর কুষ্টিয়াঞ্চলে মরমী সুফিবাদের প্রবর্তক রায়হান উদ্দীন গাজীর নাম ভুলতে বসেছে বর্তমান প্রজন্ম

বৃহত্তর কুষ্টিয়াঞ্চলে মরমী সুফিবাদের প্রবর্তক রায়হান উদ্দীন গাজীর নাম ভুলতে বসেছে বর্তমান প্রজন্ম

রহমান মুকুলঃ রায়হান উদ্দীন গাজী। কালের আবর্তে আজ এই মহান মরমী সাধকের নাম সকলেই বিস্মৃত ...