সাম্প্রতিক

মেহেরপুরে পৃথক পৃথক অভিযানে ৫৫ বোতল ফেনসিডিলসহ দু‘জন আটক

মেহেরপুর প্রতিনিধি ॥ মেহেরপুরের গাংনীতে ৫০ বোতল ফেনসিডিলসহ মুক্তাদির রহমান ওরফে কাজল (৩০) নামের একজনকে আটক করেছে পুলিশ সদস্যরা। আটককৃত কাজল গাংনী উপজেলার মটমুড়া ইউনিয়নের মহাম্মদপুর গ্রামের শহিদুল ইসলামের ছেলে। গতকাল মঙ্গলবার সকালে গাংনী থানা পুলিশের এসআই খালেদ বকতিয়ার ও এসআই শরিফুল ইসলাম সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে কাজলকে নিজ গ্রাম থেকে আটক করেন।
গাংনী থানা সূত্র জানাযায়, মহাম্মদপুর গ্রামের একটি সড়ক দিয়ে মাদক পাঁচার হচ্ছে,এমন গোপন সংবাদের ভিত্তিতে পুলিশের একটিদল ওই স্থানে অভিযান পরিচালনা করে। পুলিশের দলটি সন্দেহভাজন ভাবে মুক্তাদির রহমান কাজলকে আটক করে। এ সময় তার কাছে থাকা ব্যাগ তল্লাশি করে ৫০ বোতল ফেনসিডিল উদ্ধার করে।
গাংনী থানার ওসি হরেন্দ্রনাথ সরকার (পিপিএম) জানান,আটককৃত মুক্তাদির রহমান কাজল একজন বড় মাপের মাদক ব্যবসায়ী। তার বিরুদ্ধে মঙ্গলবার মাদকদ্রব্যে আইনে মামলা দিয়ে মেহেরপুর আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।
অপর দিকে মেহেরপুরের গাংনীতে ফেন্সিডিল সহ আব্দুর রশিদ (২৮) নামের এক যুবককে আটক করেছে জেলা গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি) । আটক আব্দুর রশিদ গাংনী উপজেলার কাজিপুর গ্রামের দিদার হোসেনের ছেলে। মঙ্গলবার সন্ধ্যার দিকে আটক করে। এসময় তার কাছে থেকে ৫ বোতল ভারতীয় ফেন্সিডিল উদ্ধার করা হয়।
ডিবির ওসি শাহিনুজ্জামান জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ডিবির এএসআই জসিম উদ্দিন এর নেতৃত্বে ডিবির একটি টিম কাজিপুর গ্রামে অভিযান চালিয়ে আব্দুর রশিদকে আটক করে। এসময় তার কাছে থাকা ব্যাগ তল্লাশী করে ৫বোতল ফেন্সিডিল উদ্ধার করে ডিবি পুলিশ। পরে তাকে আটক করে ডিবি কার্ষালয়ে নিয়ে আসা হয়। বুধবার তার নামে মাদকদ্রব্য আইনে মামলা দিয়ে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হবে। তিনি আরো বলেন, দীর্ঘ দিন ধরে আটক আব্দুর রশিদ তার নিজ এলাকায় মাদকের ব্যাবসা চালিয়ে আসছিল।