সাম্প্রতিক

কুষ্টিয়ায় স্বামীকে নদীতে ফেলে দিল স্ত্রী

কুষ্টিয়ায় স্বামীকে নৌকা থেকে ধাক্কা দিয়ে নদীতে ফেলে দিয়েছেন গৃহবধূ বিলকিস ওরফে নদী। প্রবল স্রোতে স্বামী এস এম সাব্বির নদীতে তলিয়ে গেছেন।

শনিবার দুপুরে শহরের গড়াই নদীর ঘোড়ার ঘাট এলাকায় মাঝ নদীতে বাকবিতণ্ডার এক পর্যায়ে নৌকা থেকে স্বামীকে ধাক্কা দিয়ে ফেলে দেন ওই গৃহবধূ।

স্থানীয়রা এই দৃশ্য দেখে বিলকিসকে আটক করে পুলিশে খবর দেয়। কুষ্টিয়া মডেল থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে তাকে আটক করে থানায় দিয়ে যায়। শনিবার সন্ধ্যা ৭টায় এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত সাব্বির এখনও নিখোঁজ রয়েছেন।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, দুপুরে স্বামীর সঙ্গে নৌকায় নদী পার হয়ে কুষ্টিয়া শহরের দিকে আসছিলেন বিলকিস। নৌকা মাঝ নদীতে আসলে দুজনের মধ্যে বাকবিতণ্ডা শুরু হয়। দু’জনের মধ্যে ধস্তাধস্তির এক পর্যায়ে স্বামী সাব্বিরকে ধাক্কা দিয়ে নদীতে ফেলে দেন বিলকিস। নদীতে প্রবল স্রোতে মুহূর্তেই পানিতে তলিয়ে যান সাব্বির।

নিখোঁজ সাব্বিরের বাবা এস এম সাঈদ জানান, শতাধিক মানুষের সামনে আমার ছেলেকে নদীতে ফেলে দেয়া হয়েছে। সাধারণ মানুষ সব দেখে বিলকিসকে আটক করে পুলিশে দিয়েছে।

দুই পরিবার সূত্রে জানা যায়, পারিবারিকভাবে প্রায় ৬ বছর আগে কুষ্টিয়া শহরের দিশারিপাড়ার সাঈদের ছেলে এস এম সাব্বিরের সঙ্গে বিলকিসের বিয়ে হয়। বিলকিস কুমারখালী উপজেলার কয়া ইউনিয়নের বানিয়াপাড়া গ্রামের আজিন শেখের মেয়ে। তাদের সংসারে দুই ছেলে ও এক মেয়ে রয়েছে।

বেশ কিছুদিন যাবৎ তাদের সংসারে অশান্তি শুরু হয়। মাঝে মাঝে দু’জনের মধ্যে বাকবিতণ্ডা ও মারামারির ঘটনা ঘটত।

মডেল থানার ডিউটি অফিসার এএসআই সুস্মিতা পারভীন জানান, সাব্বির দীর্ঘদিন ধরে মাদকাসক্ত। নেশা করে মাঝে মাঝে স্ত্রীকে মারধর করতেন। নৌকার মধ্যে দু’জনের মধ্যে বাকবিতণ্ডার এক পর্যায়ে ধস্তাধস্তি শুরু হলে সাব্বির নৌকা থেকে নদীতে পড়ে যান। পরে স্ত্রী নিজেই তাকে উদ্ধারের চেষ্টা করেন।

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল প্রকাশ করা হবে না

error: Content is protected !!