সাম্প্রতিক

আলমডাঙ্গার ২ কৃতি সন্তানসহ ৫ জন পুলিশের অতিরিক্ত আইজিপি পদে পদোন্নতি পেলেনঃ উৎফুল্ল আলমডাঙ্গাবাসি

আলমডাঙ্গার ২ কৃতি সন্তানসহ ৫ জন পুলিশের অতিরিক্ত আইজিপি পদে পদোন্নতি পেলেনঃ উৎফুল্ল আলমডাঙ্গাবাসি

আলমডাঙ্গার ২ কৃতি সন্তানসহ ৫ জন পুলিশের অতিরিক্ত আইজিপি পদে পদোন্নতি পেলেনঃ উৎফুল্ল আলমডাঙ্গাবাসি

আলমডাঙ্গার ২ কৃতি সন্তানসহ ৫ জন পুলিশের অতিরিক্ত আইজিপি ( অতিরিক্ত মহা-পুলিশ পরিদর্শক) পদে পদোন্নতি পেয়েছেন। পদোন্নতিপ্রাপ্ত ৫ জনের তালিকায় আলমডাঙ্গা শহরের ঘনিষ্ঠ ২ বন্ধুর নাম জানতে পেরে শহরে মানুষকে বেশ উৎফুল্ল প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করতে দেখা গেছে । গতকাল ১৮ অক্টোবর জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় এ সংক্রান্ত এক পরিপত্র প্রকাশ করে।

জানা গেছে,বিসিএস (পুলিশ) ক্যাডারে অতিরিক্ত মহা-পুলিশ পরিদর্শক ( অতিরিক্ত আইজিপি, গ্রেড -২) পদে নিম্নলিখিত ৫ জনকে পদোন্নতির জন্য সুপারিশ করা হয়। ইতোপূর্বে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের সুপিরিয়র সিলেকশন বোর্ড গত ৮ আগস্ট অনুষ্ঠিত ৭ম সভায় অতিরিক্ত আইজিপি পদে পদোন্নতির জন্য ওই ৫ জনের নাম সুপারিশ করে প্রধানমন্ত্রির নিকট পাঠায়। প্রধানমন্ত্রি গতকাল ১৮ অক্টোবর তা অনুমোদন করেন। অতিরিক্ত আইজিপি পদে পদোন্নতি অর্জনকারি ৫ জন হলেন – ঢাকার সিআইডি’র ডিআইজি আব্দুস সালাম –পিপিএম (গ্রেডেশন -২০), পুলিশ অধিদপ্তর, ঢাকার ডিআইজি মোঃ মহসিন হোসেন (গ্রেডেশন-২৮), শিল্প পুলিশের অতিরিক্ত আইজি (চলতি দায়িত্বে) মোঃ নওশের আলী – পিপিএম সেবা (গ্রেডেশন -৪১), স্পেশাল ব্র্যাঞ্জের ডিআইজি মীর শহীদুল ইসলাম বিপিএম সেবা,পিপিএম (গ্রেডেশন-৪৩) ও ঢাকা রেঞ্জের ডিআইজি মোহাম্মদ শফিকুল ইসলাম –বিপিএম (গ্রেডেশন-৪৫)।
ওই তালিকার শেষোক্ত ২ জন মীর শহীদুল ইসলাম ও মোহাম্মদ শফিকুল ইসলামের বাড়ি আলমডাঙ্গা পৌর শহরে। মীর শহীদুল ইসলাম শহরের কলেজপাড়ার মৃত মীর আব্দুল আজিজের জ্যেষ্ঠ সন্তান এবং মোহাম্মদ শফিকুল ইসলাম শহরের গোবিন্দপুর গ্রামের দোয়ারপাড়ার মৃত শওকত মিয়ার ছেলে। তারা দু’জনই সহপাঠি বন্ধু। দু’জনই ১৯৭৮ সালে আলমডাঙ্গা পাইলট মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে এসএসসি, ১৯৮০ সালে আলমডাঙ্গা ডিগ্রী কলেজ থেকে এইচএসসি পাশ করেন। পরে শেরে বাংলা কৃষি ইউনিভার্সিটি থেকে দু’বন্ধুই অনার্স ও মাস্টার্স করেন।
পদোন্নতির সংবাদ পেয়ে তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় মীর শহীদুল ইসলাম বলেন,সারা জীবন সততা বজায় রেখে চাকুরি করেছি। আগামি দিনেও যেন সন্মান অক্ষুন্ন রেখে সততার সাথে অর্পিত দায়িত্ব পালন করতে পারি, দেশের সেবা করতে পারি। সেজন্য আলমডাঙ্গাসহ দেশবাসির দোয়া কামনা করছি।
একই রকম প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছেন আলমডাঙ্গার আরেক কৃতি সন্তান মোহাম্মদ শফিকুল ইসলাম। তিনি বলেন, তার উপর অর্পিত দায়িত্বভার যেন সাফল্যের সাথে পালন করতে পারেন, দেশের সেবা করতে পারেন, সেজন্য তিনিও সকলের দোয়া চেয়েছেন।
গতকাল ১৮ অক্টোবর পারিবারিকভাবে, বন্ধুবান্ধবের ফোনে ও ফেসবুকে দেখে সংবাদ আলমডাঙ্গা শহরবাসি অবগত হন। সন্ধ্যার পর শহরের চা’র দোকানে দোকানে ও অন্যান্য আড্ডায় আলমডাঙ্গার এই দু’ কৃতি সন্তানের কৃতিত্বগাথা আলোচনার প্রধান বিষয়বস্তু হয়ে উঠে।
এদিকে,এ পদোন্নতির প্রজ্ঞাপন জারির প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য গতকাল ১৮ অক্টোবরই নির্দেশক্রমে অনুরোধ জানিয়েছেন সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগের উপসচিব মোঃ মফিদুর রহমান।

সাম্প্রতিক মতামক

মতামত

x

Check Also

আলমডাঙ্গায় অবস্থানকারি মাদকব্যবসায়িরা এলাকা ছেড়ে পালিয়েছে

দেশের অন্যান্য স্থানের মত আলমডাঙ্গার মাদকব্যবসায়িরাও এখন এলাকা ছেড়ে পালিয়েছে।  প্রতিজন জামিনের বিপরীতে লাখ টাকা ...